নাচোলে উপজেলা স্বাস্থ্য অধিকার ও যুব ফোরাম গঠন

16

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় স্থানীয় পর্যায়ে স্বাস্থ্য অধিকার ও স্বাস্থ্যসেবার মানোন্নয়নে জনসচেতনতা সৃষ্টি, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা বৃদ্ধি এবং সকল পর্যায়ে জনঅংশগ্রহণ নিশ্চিত করে স্বাস্থ্যসেবায় টেকসই উন্নয়ন সহায়ক পরিবেশ সৃষ্টি করার লক্ষে নাচোলে উপজেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরাম ও উপজেলা স্বাস্থ্য অধিকার যুব ফোরাম গঠন ও অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে নাচোল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ফোরাম গঠন ও অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
বাংলাদেশ হেলথ ওয়াচের সহযোগিতায় এবং উন্নয়ন সংস্থা প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটির ব্যবস্থাপনায় এই ফোরাম গঠন করা হয়।
নাচোল সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ হাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেনÑ প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটির নির্বাহী পরিচালক ও জেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরামের সাধারণ সম্পাদক হাসিব হোসেন, নাচোল মহিলা ডিগ্রি কলেজের উপাধ্যক্ষ আশীষ কুমার চক্রবর্তী, বাংলাদেশ হেলথ ওয়াচের প্রোগ্রাম অফিসার (নেটওয়ার্কিং অ্যান্ড লিঁয়াজো) রাজেশ কুমার অধিকারী ও নাচোল ডায়াবেটিক সমিতির সভাপতি আবদুস সাত্তার। স্বাগত বক্তব্য দেন জেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরামের তথ্যায়ন ও গবেষণা সম্পাদক সাজিদ তৌহিদ। সঞ্চালনা করেন প্রয়াসের কর্মসূচি ব্যবস্থাপক ফারুক আহমেদ।
সভায় আলোচনার ভিত্তিতে উপজেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরাম গঠন করা হয়। এতে নাচোল সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ হাফিজুর রহমানকে সভাপতি, নাচোল মহিলা ডিগ্রি কলেজের উপাধ্যক্ষ আশীষ কুমার চক্রবর্তী ও হোমিও চিকিৎসক সমাজকর্মী তানজিলা খাতুনকে সহসভাপতি, প্রয়াসের কর্মসূচি ব্যবস্থাপক ফারুক আহমেদকে সাধারণ সম্পাদক, নাচোল ডায়াবেটিক সমিতির সভাপতি আবদুস সাত্তারকে যুব সংগঠন বিষয়ক সম্পাদক, পল্লী চিকিৎসক ও ইমাম আবদুর রহমান মানিককে স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠান বিষয়ক সম্পাদক, সামাজিক সংগঠন ইফেকটিভ লিডারশিপ সোসাইটির (ইএলএস) ভাইস প্রেসিডেন্ট মজিদুল ইসলামকে তথ্যায়ন ও গবেষণা সম্পাদক এবং সাংবাদিক মতিউর রহমানকে প্রচার ও গণমাধ্যম বিষয়ক সম্পাদক করে ১৩ সদস্য বিশিষ্ট ফোরাম গঠন করা হয়। সদস্যরা হলেনÑ রানী ইলা মিত্র সংসদের সভাপতি বিধান সিং, সহকারী শিক্ষক ফরিদা ইয়াসমিন, নাচোল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জয়শ্রী প্রামানিক, ব্যবসায়ী শাহীন আখতার ও সাংস্কৃতিক কর্মী শ্যামল কুমার বাঁধন।
এরপর উপজেলা স্বাস্থ্য অধিকার যুব ফোরাম গঠন করা হয়। এতে সমন্বয়কারী হিসেবে মনোনীত হয়েছেন সাংস্কৃতিক কর্মী শ্যামল কুমার বাঁধন। এছাড়া যুগ্ম সমন্বয়কারী হিসেবে ফারিয়া ইসলাম দৃষ্টি ও আসাদুজ্জামান, তথ্যায়ন সম্পাদক নাজিউর রহমান আদিত, গবেষণা সম্পাদক সামিউম বাসির, প্রচারাভিযান সম্পাদক প্রভাস কুমার, গণমাধ্যম সম্পাদক ডিপজল বর্মণ এবং পাঠচক্র সম্পাদক হিসেবে সোহাগী খাতুন মনোনীত হয়েছে। সদস্যরা হচ্ছেনÑ মামুনার রশিদ, সুজিত রবিদাস, প্রদীপ দেব, আফিফা খাতুন, নাঈম ইসলাম, সুজন আলী, নাইমা খাতুন, ইমতিয়ার রহমান ইমন, জাহিদ মিঞা, শরৎ চন্দ্র শীল, রুমা খাতুন বৃষ্টি, মাহফুজা খাতুন, মাসুম আলী, জাহান সুলতানা তিথী, মাহফুজা মনীষা, মর্জিনা খাতুন ও হালিম আহমেদ।
সভার শুরুতে স্বাস্থ্য অধিকার ফোরাম সম্পর্কিত পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ হেলথ ওয়াচের প্রোগ্রাম অফিসার (নেটওয়ার্কিং অ্যান্ড লিঁয়াজো) রাজেশ কুমার অধিকারী।
এরপর উন্মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। এতে অনেকেই মতামত ব্যক্ত করেন এবং ইউনিয়ন পর্যায়ে কাজের জন্য নেজামপুর ইউনিয়নকে নির্বাচিত করা হয়।