দ্রুত উইকেট হারিয়ে শঙ্কায় বাংলাদেশ

8

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ঢাকা টেস্টে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়েছে বাংলাদেশ। ২৩ রান তুলতেই চার উইকেট হারিয়েছে স্বাগতিকরা। সেখান থেকে দলের হাল ধরেন প্রথম ইনিংসে ইতিহাস রচনা করা মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাস। তাদের অবিচ্ছিন্ন জুটি ইতোমধ্যে ১১ রান সংগ্রহ করেছে। মুশফিক ১৪ ও লিটন ১ রানে অপরাজিত আছেন। শ্রীলঙ্কার চেয়ে এখনো ১০৭ রানে পিছিয়ে আছে মুমিনুল বাহিনী। ব্যাটিংয়ে নেমে প্রথম ইনিংসের মতো দ্বিতীয় ইনিংসেও শূন্য রানে আউট হন বাংলাদেশ দলের নির্ভরযোগ্য ওপেনার তামিম ইকবাল। ১১ বল মোকাবিলা করে আশিস ফার্নান্ডোর বলে স্লিপে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান তিনি। তামিমের পর রান আউটে কাটা পড়েন নাজমুল হোসাইর শান্ত। আশিস ফার্নান্ডোর বলে রান নিতে গিয়ে যান তিনি। কিন্তু জয়াবিক্রমের থ্রো সরাসরি উইকেটে লাগে। ক্রিজে এসেই ফিরে যান অধিনায়ক মুমিনুল হক। কাশুন রাজিথার বল মুমিনুলের ব্যাটের কানা ছুঁয়ে উইকেট কিপারের গ্লাভসে জমা পড়ে। শ্রীলঙ্কার ফিন্ডারদের জোরালে আবেদনে প্রথমে সাড়া দেননি আম্পিয়ার। পড়ে রিভিউ নিলে শ্রীলঙ্কার পক্ষে যায়। প্রথম ইনিংসে শূন্য রানে আউট হওয়া ওপেনার মাহমুদুল হাসান জয় এই ইনিংসে ১৫ রান করে সাজঘরে ফিরেছেন। আশিস ফার্নান্ডোর বলে কামিন্ডু মেন্ডিসের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান তিনি। এর আগে শূন্য ও ৯ রানে জয় দুবার জীবন পেলেও ইনিংস বড় করতে পারেননি জয়। গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকা টেস্টের চতুর্থ দিনে ৫০৬ রানে থামে শ্রীলঙ্কার প্রথম ইনিংস। ১৪৫ রান করে অপরাজিত থাকেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস। ১৪১ রানের লিড পেয়েছে তারা। পাঁচ উইকেট শিকার করেন সাকিব আল হাসান। এটি টেস্ট ক্যারিয়ারে তার ১৯তম পাঁচ উইকেট শিকার। অন্যদিকে এবাদত হোসেন নিয়েছেন ৪ উইকেট। নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৩৬৫ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ। ১৭৫ রানে অপরাজিত থাকেন মুশফিকুর রহিম। লিটন দাস ১৪১ রান করেন।