দেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেল নতুন দুটি সিনেমা

5

ঢালিউডে মৌসুমীর মৌসুম অনেক আগেই ফুরিয়েছে! বিস্ময়করভাবে এমন আলাপ মিথ্যে প্রমাণ করলেন প্রিয়দর্শিনী। গতকাল শুক্রবার দেশের প্রেক্ষাগৃহে নতুন দুটি সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে। এগুলো হলো ‘ভাঙন’ ও ‘দেশান্তর’। কাকতাল হলেও সত্যি, দুটো ছবিতেই নায়িকা চরিত্রে দেখা যাবে মৌসুমীকে। আবার দুটোই নির্মিত হয়েছে ২০২০-২১ অর্থবছরে সরকারি অনুদান পেয়ে। তবে দুটি ছবির মধ্যে বিশাল একটি পার্থক্য দেখা গেলো, সেটি হলের সংখ্যায়। ‘ভাঙন’ ১৯টি হল পেলেও ‘দেশান্তর’ মাত্র দুটিতে। ফলে দুটো সিনেমার মাঝে ব্যবধান প্রায় দশগুণ! একদিনে দুই ছবি মুক্তির বিষয়ে মৌসুমী বলেছেন, “ভাঙন’ আসার কথা ছিলো ৪ নভেম্বর, আর ‘দেশান্তর’র ১১ নভেম্বর। কিন্তু কোনো কারণে সেটা হয়নি। এখন একসঙ্গেই মুক্তি পাচ্ছে দুটো। কাকতালীয়ভাবে ঘটনাটা হয়ে গেছে। আমি এখন কোনটা রেখে কোনটা বলবো। দুইটা ছবিই আমার কাছে প্রিয়। দুইটার প্রতিই আমার মায়া সমানভাবে কাজ করছে।” নিজের ছোট গল্প অবলম্বনে ‘ভাঙন’ নির্মাণ করেছেন মির্জা সাখাওয়াৎ হোসেন। এতে মৌসুমীর সঙ্গে আছেন ফজলুর রহমান বাবু, প্রাণ রায়, মির্জা আফরিন, হিমেল রাজ, মিশু চৌধুরী, খলিলুর রহমান কাদেরী, রাশেদা চৌধুরী প্রমুখ।

ছবিটি দেখার জন্য দর্শকের প্রতি আহ্বান জানিয়ে নির্মাতা মির্জা সাখাওয়াৎ হোসেন বলেছেন, “চলচ্চিত্র হলো জীবনের প্রতিচ্ছবি। তাই ‘ভাঙন’ দেখার মধ্য দিয়ে দর্শক নিজেকে অনুভব করবে। আমাদের আবহমান কালের মানুষের জীবনযাত্রা সম্পর্কে একটা ভিন্ন অনুভূতি পাবে।” অন্যদিকে ‘দেশান্তর’ বানিয়েছেন আশুতোষ সুজন। বিজ্ঞাপন ও নাটক নির্মাণ করে হাত পাকিয়ে সিনেমায় নেমেছেন তিনি। কবি নির্মলেন্দু গুণের উপন্যাস অবলম্বনে ছবিটি নির্মাণ করেছেন এই নির্মাতা। এটি মুক্তি পেয়েছে যমুনা ফিউচার পার্কের ব্লকবাস্টার সিনেমাস এবং পুরান ঢাকার লায়ন সিনেমাসে। হলসংখ্যা এবং নিজের সিনেমা নিয়েআশুতোষ সুজন বললেন, ‘প্রথম সপ্তাহে দুটি হলে প্রদর্শিত হচ্ছে। দ্বিতীয় সপ্তাহে স্টার সিনেপ্লেক্সসহ আরও কিছু হলে দেওয়ার পরিকল্পনা আছে। আমরা একটু ধীরে-সুস্থে দিতে চাই, তাড়াহুড়ো করতে চাই না।’ আশুতোষ সুজন জানালেন, ‘দেশান্তর’ তার দুই বছরের জার্নি। অবশেষে সেটার সমাপ্তি হলো। সেই সঙ্গে নতুন এক সূচনাও হয়েছে, নির্মাতা হিসেবে বড় পর্দায় তার অভিষেক। দেশভাগ, দেশপ্রেম এবং প্রেমের গল্পে নির্মিত হয়েছে ‘দেশান্তর’। এর বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন মৌসুমী, আহমেদ রুবেল, ইয়াশ রোহান, রোদেলা টাপুর, মামুনুর রশীদ, শুভাশিস ভৌমিক, মোমেনা চৌধুরী প্রমুখ।