দুর্বৃত্তদের গুলিতে গাইবান্ধার এমপি লিটনের মৃত্যু

102

captureগাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে সন্ত্রাসীর গুলিতে নিহত হয়েছেন সংসদ সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন, যিনি এক শিশুকে গুলি করে দেশজুড়ে আলোচিত হয়েছিলেন।  শনিবার সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বামনডাঙ্গা ইউনিয়নের সাহাবাজ গ্রামে নিজ বাড়িতে হামলার শিকার হন তিনি। স্থানীয়রা জানান, বিকেলে এমপি লিটন বাড়ির উঠানে দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে বৈঠক করছিলেন। বৈঠক শেষে তিনি নিজের ঘরে যাওয়ার সময় হঠাৎ করে মোটরসাইকেল নিয়ে আসা তিন দুর্বৃত্ত তার পায়ে ও বুকের ডান পাশে গুলি করে পালিয়ে যায়। এ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতাল নেওয়া হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের প্রধান ডা. বিমল চন্দ্র রায় সাংবাদিকদের জানান, এমপি লিটনকে বাঁচানোর চেষ্টায় সফল হননি তারা। লিটনের বুকের বাম দিকে দুটো এবং বাম হাতে একটি গুলি লেগেছিল বলে এই চিকিৎসক জানান। এই সংসদ সদস্যের স্ত্রী সৈয়দা খুরশিদ জাহান স্মৃতি বলেন, মাগরিবের নামাজের পরপর মোটর সাইকেলে অজ্ঞাতপরিচয় তিন যুবক বাড়িতে ঢুকে গুলি করে পালিয়ে যায়। সাংসদের কর্মচারী জুয়েল বলেন, সন্ধ্যায় মোটর সাইকেলে পাঁচ যুবক স্যারের কাছে আসেন। এদের মধ্যে তিনজন ঘরে ঢুকে স্যারের সঙ্গে কথা বলতে না বলতেই এলোপাতাড়ি গুলি করে চলে যায়। ঘটনার পর লিটন সমর্থকরা বামনডাঙ্গা-নলডাঙ্গা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেছে। এক শিশুকে গুলি করে গত বছর দেশজুড়ে আলোচিত হয়েছিলেন লিটন। ২০১৫ সালের ২ অক্টোবর সুন্দরগঞ্জ উপজেলার গোপালচরণ গ্রামের শিশু শাহাদাত হোসেন সৌরভকে গুলি করেন তিনি। সৌরভের বাবা সাজু মিয়ার করা মামলায় ওই বছরের ১৪ অক্টোবর রাতে রাজধানীর উত্তরা থেকে লিটনকে গ্রেপ্তার করেছিল পুলিশ। পরে তিনি জামিনে ছাড়া পান।