দুই পর্দাতেই ব্যস্ত সোহানা সাবা

95

06দুই পর্দায় সরব হয়ে উঠেছেন প্রিয়দর্শনী অভিনেত্রী সোহানা সাবা। তিনি প্রায় প্রতিদিন শুটিংয়ে অংশগ্রহণ করছেন। নাটক, মিউজিক ভিডিও থেকে শুরু করে চলচ্চিত্রে নিয়মিত অভিনয় করছেন সাবা।
সম্প্রতি সাবা কণ্ঠশিল্পী মিনারের ‘আমি দেখেছি তোমাকে’ শিরোনামের একটি গানের মিউজিক ভিডিওর মডেল হয়েছেন। এতে সাবার বিপরীতে অভিনয় করেছেন নবাগত জায়েন। লাইভ টেকনোলজির ব্যানারে প্রকাশিত হতে যাওয়া এই ভিডিওটি নির্মাণ করছেন অনন্য মামুন। এ প্রসঙ্গে সাবা জানান, আমি নাচের মাধ্যমে ক্যারিয়ার শুরু করেছি। তাই নাচ করতে সব সময়ই আমার ভালো লাগে। মিউজিক ভিডিওটিও অনেক বড় পরিসরে নির্মাণ করা হয়েছে। এতে প্রায় ৭০ জনের একটি টিম কাজ করেছে। ভিডিওতে রাজা-বাদশাদের কাহিনী তুলে ধরা হয়েছে। সবকিছু মিলিয়ে ভিডিওটি নিয়ে আমি শতভাগ আশাবাদী।’ এদিকে, বর্তমানে একাধিক ধারাবাহিকে নিয়মিত অভিনয় করছেন সোহানা সাবা। এগুলো হচ্ছেথ ‘রেডিও জকি’, ‘কতিপয় গল্প’ ও ‘টাইম’। প্রতিটি নাটকেই সিডিউলমাফিক নিয়মিত শুটিং করছেন তিনি। এছাড়া আসছে ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে একটি খ- নাটকে অভিনয় করেছেন সাবা। এর শিরোনাম ‘অ-প্রেম’। এতে একটি আইটেম গানে পারফর্ম করেছেন সাবা। মাহমুদ দিদারের পরিচালনায় নাটকটিতে তাকে অপরাধজগতের বাসিন্দারূপে দেখা যাবে। এতে সাবার চরিত্রটির নাম লিসা। ভালোবাসে আরেক গ্যাংস্টার জহিরকে। এভাবেই নাটকীয়তার মধ্যে দিয়ে নাটকের কাহিনী এগিয়ে যাবে। এ প্রসঙ্গে সাবার ভাষ্যথ ‘অ-প্রেম নাটকের গল্পের প্রয়োজনে আমাকে আইটেম গানে নাচতে হয়েছে। ‘ডানাকাটা পরী’ শিরোনামের গানে পারফর্ম করেছি। নাটকটি আসছে ভ্যালেন্টাইন্স ডেতে দীপ্ত টিভিতে প্রচার হবে।’ ছোটপর্দার পাশাপাশি চলচ্চিত্রেও কাজ করছেন সাবা। সম্প্রতি ‘চোখের জল’ শীর্ষক ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন সাবা। কলকাতার অভিনেতা দেবের বিপরীতে যৌথ প্রযোজনার ছবিতে অভিনয় করবেন তিনি। রোমান্টিক ঘরানার এ ছবিটি শ্রী ভেঙ্কটেশ ফিল্ম ও বাংলাদেশের ডিজিটাল মুভিজের সঙ্গে যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত হচ্ছে। দেবের বিপরীতে অভিনয় প্রসঙ্গে সাবা বলেন, দেবের বিপরীতে কাজ করতে পারব ভেবে বেশ ভালো লাগছে। এতে বদলে যাওয়া অন্য এক সাবাকে দর্শক আবিষ্কার করতে পারবেন। আগামী মাসের মধ্যে চলচ্চিত্রটির শুটিং শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের শুরু থেকে বেশ আলোচনা-সমালোচনার মধ্য দিয়ে সময় পার করছেন এই অভিনেত্রী। বিশেষ করে নির্মাতা মুরাদ পারভেজের সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদের পর থেকেই সমালোচিত হন তিনি। ওই সময় তিনি বলেন, বাবা-মায়ের ইচ্ছের বিরুদ্ধে মাত্র তিন মাস প্রেম করে  অনেক অল্প বয়সে মুরাদ পারভেজকে বিয়ে করি। খুব সুন্দর অনেকগুলো বছর মুরাদের সঙ্গে কাটিয়েছি। আমাদের একমাত্র ছেলেকে নিয়ে স্বপ্নের মতো কিছু বছর পার করেছি। কিন্তু মতানৈক্যের জের ধরে ২০১৫ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে আমরা আলাদাভাবে আছি। মুরাদ আমার সবচেয়ে পছন্দের ডিরেক্টর। ইনফ্যাক্ট আমার সবচেয়ে বড় বন্ধু, প্রিয় বন্ধু। কিন্তু আমরা বোঝাপড়া করে ঠিক করেছি একসঙ্গে আর নয়। আইনগতভাবে আমরা এখন আলাদা।’