দৈনিক গৌড় বাংলা

মঙ্গলবার, ২৫শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৯শে জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

দিল্লিতে রেড অ্যালার্ট, উত্তর-পশ্চিম ভারতে তীব্র তাপপ্রবাহের সতর্কতা

তীব্র গরমে ফুটছে উত্তর-পশ্চিম ভারত। গত শনিবার উত্তর-পশ্চিম ভারতের বেশ কয়েকটি অংশের অপর দিয়ে বয়ে গেছে তীব্র তাপপ্রবাহ। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪৬ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াসে পৌঁছেছে। আগামী ৫ দিন দিল্লি, হরিয়ানা, পাঞ্জাব, রাজস্থান এবং উত্তর প্রদেশের তীব্র গরম অব্যাহত থাকবে বলে পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। ভারতীয় গণমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে এক প্রতিবেদনে খবরটি দিয়েছে। ভারতের আবহাওয়া বিভাগ (আইএমডি) তার সর্বশেষ পূর্বাভাসে বলেছে, উত্তর-পশ্চিম ভারতের সমভূমিতে আগামী পাঁচ দিনের মধ্যে তাপপ্রবাহ থেকে তীব্র তাপপ্রবাহ অব্যাহত থাকতে পারে এবং পূর্ব ও মধ্য ভারতে আগামী ৩ দিন তাপপ্রবাহ থাকতে পারে। আবহাওয়া দপ্তর দিল্লি, হরিয়ানা, পাঞ্জাব এবং পশ্চিম রাজস্থানের জন্য রেড অ্যালার্ট জারি করেছে। পূর্ব রাজস্থান, উত্তর প্রদেশ এবং বিহারে অরেঞ্জ অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। রাজস্থান, পাঞ্জাব, হরিয়ানা, চ-ীগড় এবং দিল্লিতে ২২ মে পর্যন্ত এবং পশ্চিম উত্তরপ্রদেশের কিছু অংশে ১৯ মে পর্যন্ত তাপপ্রবাহ থেকে গুরুতর তাপপ্রবাহের জোরালো সম্ভাবনা রয়েছে। পূর্ব উত্তরপ্রদেশ, পশ্চিম উত্তরপ্রদেশের কিছু অংশে, উত্তরাখ-, গুজরাট, মধ্যপ্রদেশ এবং ওডিশার ওপর দিয়ে ২২ মে পর্যন্ত তাপপ্রবাহের জোরালো সম্ভাবনা রয়েছে। বিহার, গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ এবং ঝাড়খ-ে ২০ মে পর্যন্ত একই অবস্থা বিরাজ করবে বলে পূর্বাভাসে বলা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জনসাধারণকে সতর্ক থাকার জন্য বলেছেন এবং শিশু, বয়স্ক ও দীর্ঘমেয়াদি রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে জরুরি ভিত্তিতে যতœশীল হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। গত শনিবার রাজস্থানের বারমেরে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৪৬ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ফলোদি, পিলানি, জালোর, জয়সালমির, করৌলি, গঙ্গানগর এবং সিকারসহ রাজ্যের আরও কয়েকটি জায়গায় তাপমাত্রা ছিল ৪৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপর। নাজাফগড়ে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪৭ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং হরিয়ানার সিরসায় ৪৭ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াসে পৌঁছেছে। এদিকে, আইএমডি দক্ষিণ ভারতের অনেক জায়গায় ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে। ১৯ ও ২২ মে উপকূলীয় কর্ণাটকে, ২১ ও ২২ মে দক্ষিণ কর্ণাটকে, ১৮ মে উপকূলীয় অন্ধ্রপ্রদেশ ও রায়ালসিমায় এবং ২১ মে পর্যন্ত লাক্ষাদ্বীপে বিচ্ছিন্নভাবে ভারী বৃষ্টিপাতের প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে জানিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ। তামিলনাড়ু, পদুচেরি, কারাইকাল, কেরালা এবং মাহেতে ২২ মে পর্যন্ত এবং দক্ষিণ কর্ণাটকে ২০ মে পর্যন্ত বিচ্ছিন্নভাবে ভারী থেকে প্রবল ভারী বৃষ্টিপাতের জোরালো সম্ভাবনা রয়েছে। ১৯ থেকে ২১ মে পর্যন্ত তামিলনাড়ু এবং কেরালায় অত্যন্ত ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। আইএমডি স্থানীয় সময় রোববার কেরালার পাথানামথিট্টা, ইদুক্কি এবং কোট্টায়াম জেলায় ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাতের ব্যাপারে ’রেড অ্যালার্ট’ জারি করেছে। তিরুবনন্তপুরম, কোল্লাম, আলাপুঝা এবং এনারকুলাম জেলার জন্য অরেঞ্জ অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে।

About The Author