দাউদ মার্চেন্টকে ভারতের হাতে তুলে দিয়েছে বাংলাদেশ

73

daud-marchent-696x418ভারতীয় আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন দাউদ ইব্রাহীমের সহযোগী আব্দুর রউফ দাউদ মার্চেন্টকে ভারতের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার ভোর রাতে বাংলাদেশের আইন-শৃঙ্খলাবাহিনী তাকে মুম্বাই অপরাধ বিভাগের কর্মকর্তাদের হাতে তুলে দিয়েছেন। ভারতের দ্য হিন্দু পত্রিকার অনলাইন সংস্করণের এক খবরে এ কথা বলা হয়েছে। দ্য হিন্দুর খবরে বলা হয়েছে, অনুপ্রবেশের দায়ে দাউদ মার্চেন্টকে গ্রেপ্তার করে বাংলাদেশ। এরপর থেকে তিনি কারাগারে আছেন। গত সপ্তাহে কারাগার থেকে ছাড়া পান। দাউদ মার্চেন্টকে দেশে ফেরাতে অনেক দিন ধরেই বাংলাদেশের সঙ্গে কথা বলছে ভারত। ভারতের শীর্ষ পুলিশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, কারাগার থেকে ছাড়া পাওয়ার পরই বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষ দাউদ মার্চেন্টকে মেঘালয়ে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) হাতে তুলে দেয়। খবরে বলা হয়েছে, ইন্টারপোলের সহায়তায় সীমান্তে দাউদ মার্চেন্টের হস্তান্তর-প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়। তবে আনুষ্ঠানিকভাবে বলা হচ্ছে, দাউদ মার্চেন্ট অবৈধভাবে ভারতে প্রবেশের চেষ্টা করার সময় বিএসএফের হাতে আটক হন। এ ব্যাপারে পুলিশের যুগ্ম কমিশনার (অপরাধ) সঞ্জয় সাক্সেনা দ্য হিন্দুকে বলেন, দাউদ মার্চেন্টকে জিজ্ঞাসাবাদের পরই বিএসএফ জানতে পারে যে তিনি মুম্বাইয়ে গুলশান কুমার হত্যা মামলার আসামি এবং এ মামলায় কারাবাসের সময় প্যারোলে মুক্তি পেয়ে লাপাত্তা হয়ে যান। দাউদ মার্চেন্টকে বৃহস্পতিবার সকালেই মুম্বাই নিয়ে সেখান উচ্চ আদালতে হাজির করা হয়। ১৯৯৭ সালে গায়ক ও টি-সিরিজের প্রতিষ্ঠাতা গুলশান কুমারকে খুনের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ রয়েছে দাউদ ইব্রাহীমের সাবেক এ সহযোগীর বিরুদ্ধে। মুম্বাই অপরাধ বিভাগের কর্মকর্তারা বলছেন, বৃহস্পতিবার রাতে মেঘালয় প্রদেশের সীমান্তে ভারতীয় কর্তৃপক্ষের কাছে দাউদ মার্চেন্টকে হস্তান্তর করেছে বাংলাদেশের আইন-শৃঙ্খলাবাহিনী। পরে তাকে সড়কপথে গুয়াহাটি বিমানবন্দরে নেওয়া হয়েছে। পুলিশের শীর্ষ এক কর্মকর্তা বলেন, কারাগার থেকে মুক্তি পাওয়ার পর মার্চেন্টকে মেঘালয়ে নেওয়া হয়। পরে বাংলাদেশি কর্তৃপক্ষ তাকে বিএসএফের কাছে হস্তান্তর করেছে।