দক্ষিণ আফ্রিকাকে উড়িয়ে বিশ্বকাপ ফাইনালে ইংল্যান্ড

3

ফিল্ডিংয়ের সময় ক্যাচ মিসের মহড়ার পর ব্যাটিংয়ে নেমে ভজঘট পাকিয়ে মেয়েদের ওয়ানডে বিশ্বকাপ শেষ হয়ে গেল দক্ষিণ আফ্রিকার। তাদেরকে ১৩৭ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে ইংল্যান্ড। আগামী রোববার ফাইনালে তাদের প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া। গত আসরেও সেমি-ফাইনালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে হেরে বিদায় নিয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। বৃহস্পতিবার ম্যাচে ইংল্যান্ডের ২৯৪ রান তাড়ায় নেমে প্রোটিয়ারা মাত্র ১৫৬ রানে গুটিয়ে যায়।

বৃহস্পতিবার ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি ওভালে অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় সেমিফাইনালে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ইংল্যান্ডের শুরুটাও ভালো ছিল না। ৭৭ রানের মধ্যে বিদায় নেন ট্যামি বিউমন্ট, হিদার নাইট ও ন্যাট সিভার। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার ফিল্ডারদের ক্যাচ মিসের সৌজন্যে সংখ্যাটা আর বাড়েনি। এরপর পঞ্চম উইকেটে ডাঙ্কলির সঙ্গে ১১৬ রানের জুটিতে দলকে বড় সংগ্রহের পথে এগিয়ে নেন ওয়াট। ৭২ বলে ৬০ রান করেন ডাঙ্কলি। শেষ দিকে এক্লেস্টোনের ১১ বলে ৫ চারে ২৪ রানের ক্যামিওতে বড় স্কোর পায় ইংল্যান্ড।

৫ বার জীবন পেয়ে ওয়াট খেলেন ১২৫ বলে ১২ চারে ১২৯ রানের ইনিংস। রান তাড়ায় নেমে সেই এক্লেস্টোনের সংহারমূর্তির সামনে দাঁড়াতেই পারেননি প্রোটিয়া ব্যাটাররা। শুরুটা করেছিলেন আনা শ্রাবসোল। প্রথম দুই উইকেট তার ঝুলিতেই যায়। এরপর তৃতীয় উইকেটে ৩৬ রানের একটি জুটি গড়েন লারা গুডল ও সুনে লিস। কিন্তু এ জুটি ভাঙার পর আর তারা ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি। ব্যাট হাতে ক্যামিও খেলার পর বল হাতে ৩৬ রানে ৬ উইকেট নিয়ে এক্লেস্টোন গুঁড়িয়ে দেন দক্ষিণ আফ্রিকাকে। শেষ ৬ উইকেট এক্লেস্টোনের ঝুলিতেই উঠেছে। এটা তার ওয়ানডে ক্যারিয়ারে প্রথম ৫ উইকেট। দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে সর্বোচ্চ ৩০ রান করেন মিগনন ডু প্রিজ।