তুরস্কের দক্ষিণাঞ্চলে সংঘর্ষে নিহত ২৩

55

07-Syrea

তুরস্কের দক্ষিণাঞ্চলে নিরপত্তা বাহিনীর সদস্যরা ২০ কুর্দি বিদ্রোহীকে হত্যা করেছে। অপরদিকে একই এলাকায় বিদ্রোহীদের হামলায় তিন তুর্কি সেনা নিহত হয়েছেন। এসব ঘটনার পর তুরস্কের কুর্দি অধ্যুষিত এলাকার সবচেয়ে বড় শহর দিয়ারবাকিরে জারি করা সান্ধ্য আইনের পরিসর বিস্তৃত করা হয়েছে। গত বুধবার এসব কথা জানিয়েছে দেশটির সামরিক বাহিনী। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের একজন প্রত্যক্ষদর্শী সাংবাদিক জানিয়েছেন, সান্ধ্য আইনের আওতায় থাকা দিয়ারবাকিরের সুর এলাকায় গুলিবর্ষণ ও বিস্ফোরণের শব্দের মধ্যেই শিশু ও বয়স্ক ব্যক্তিসহ শত শত স্থানীয় বাসিন্দা এলাকা ছেড়ে পালিয়েছেন। পুলিশের হেলিকপ্টারগুলো এ সময় মাথার উপর চক্কর দিচ্ছিল। সেনাবাহিনী জানিয়েছে, মঙ্গলবার সিরীয় সীমান্তের কাছে সিজের শহরে কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টির (পিকেকে) ১১ সদস্য এবং সুরে নয় সদস্য নিহত হয়েছেন। গেল মাসে দেশটির দক্ষিণাঞ্চলে নিরাপত্তা অভিযান শুরু হওয়ার পর থেকে এদের নিয়ে এই দুটি শহরে এ পর্যন্ত প্রায় ৬০০ পিকেকে সদস্য নিহত হলেন। সুরে বিদ্রোহীদের হামলায় তিন সেনা সদস্য নিহত হওয়ার খবরও জানিয়েছে সেনাবাহিনী। এখানে বিদ্রোহীরা নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের লক্ষ্য চালানো হামলায় রাইফেল থেকে গুলিবর্ষণ ও রকেট লঞ্চার ব্যবহার করেছে বলে জানিয়েছে নিরাপত্তা সূত্রগুলো। দিয়ারবাকিরের প্রাচীন এলাকা সুরে ২ ডিসেম্বর থেকে প্রায় ২৪ ঘণ্টা সান্ধ্য আইন বজায় রাখা হচ্ছে। বিদ্রোহী ও সরকারি বাহিনীর লড়াইয়ে রোমান আমলের দেয়াল ঘেরা শহরের এ অংশটির ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। জুলাইয়ে রাষ্ট্র ও পিকেকের সঙ্গে থাকা অস্ত্রবিরতি চুক্তি ভেঙে যাওয়ার পর থেকে দুপক্ষের মধ্যে ব্যাপক লড়াই-সংঘাতের ঘটনা ঘটছে। আড়াই বছরের ওই অস্ত্রবিরতির আগে ১৯৮৪ সাল থেকে চলে আসা দুপক্ষের লড়াইয়ে প্রায় ৪০ হাজার মানুষ নিহত হয়েছিলেন।