তাহলে কী দক্ষিণের কাছে হেরে যাচ্ছে তিন খান?

3

বেশ কয়েক বছর ধরেই ভারতে দক্ষিণী সিনেমা দাপটের সঙ্গে এগিয়ে যাচ্ছে। ‘বাহুবলী’ থেকে শুরু করে ‘কেজিএফ’, ‘পুষ্পা :দ্য রাইজ’, সবশেষ ‘আরআরআর’ সিনেমাগুলো বক্স অফিস কাঁপাচ্ছে। কাছাকাছি সময়ে মুক্তি পাওয়া ‘আরআরআর’ সিনেমাটি পেছনে ফেলছে সঞ্জয় লীলা বানসালির ‘গঙ্গুবাঈ কাঠিয়াদি’ এবং পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রীর ‘দ্য কাশ্মির ফাইলে’কে। যেখানে একসময় বলিউড সিনেমা দাঁপিয়ে বেড়াতো সেখানে দক্ষিণের এমন সাফল্যে রীতিমতো চিন্তার ভাজ পড়েছে বলিউড তারকা-সংশ্লিষ্টদের।

অনেকেই মনে করছেন বলিউড রাজত্বের দিন হয়তো শেষ হয়ে আসছে। এমনকি ক’দিন আগেই বিষয়টি নিয়ে কথা বলেছেন বলিউড ভাইজান সালমান। তিনি বলেন, ‘আরআরআর’ ভালো ব্যবসা করছে, তা সত্যিই দারুণ খবর। তবে এটা বুঝতে পারি না দক্ষিণী সিনেমা আমাদের এখানে ভালো চললেও আমাদের সিনেমা দক্ষিণে কেন ভালো চলে না? হিরোইজমই ছবির আসল ইউএসপি। আমার সিনেমাগুলো সবই তা-ই। এ ফমুর্লা দক্ষিণের আগে বলিউডে ছিল। এখন আমাদের ফমুর্লাতেই দক্ষিণী সিনেমা মারকাটারি ব্যবসা করছে। দক্ষিণী সিনেমার দাপটে মনে হচ্ছে বলিউড দিন দিন পিছিয়ে পড়ছে।’

ভাইজানের এমন শঙ্কার মাঝেই পাশাপাশি সময়ে মুক্তির কথা রয়েছে সালমান-ক্যারিনার বলিউড সিনেমা ‘টাইগার থ্রি’, রণবীর-আলিয়ার ‘ব্রক্ষ্মাস্ত্র’, শাহরুখ-দীপিকার ‘পাঠান’, আমির খানের ‘লাল সিং চন্দ’ এবং দক্ষিণী ব্যবসাসফল ‘কেজিএফ’-এর সিক্যুয়েল ‘কেজিএফ:চ্যাপ্টার টু’ সিনেমাটি। আর এতেই এরইমধ্যে শুরু হয়েছে বক্স অফিস হিট এবং প্রতিযোগিতায় বলিউড সিনেমার টিকে থাকা নিয়ে নানা আলোচনা।

দক্ষিণী সিনেমার জয়জয়কারের এই সময়ে কেজিএফ:চ্যাপ্টার টু সিনেমাটির সঙ্গে বিগ বাজেটের এই সিনেমাগুলো কতটা সফলতার মুখ দেখবে এ নিয়ে শঙ্কা থেকেই যাচ্ছে। অনেকেই মনে করছেন, সালমান, শাহরুখ, আমির খান সুপারস্টার হওয়ায় তাদের সিনেমাগুলো ব্যবসা করলেও প্রত্যাশিত লক্ষ্য অর্জনে ব্যর্থ হতে পারে। তবে এরইমধ্যে দক্ষিণী সিনেমায় যাত্রা শুরু করছেন সালমান খান। তেলুগু সুপারস্টার চিরঞ্জীবীর আগামী ছবি ‘গডফাদার’ দিয়েই দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রিতে সাইন করবেন ভাইজান। মালায়ালাম ‘লুসিফার’ সিনেমাটি তেলুগু ভাষায় রিমেক করছেন চিরঞ্জীবী। যেখানে ভাইটাল রোলে পর্দা কাঁপাবেন সালমান।