তাহলে কী আফ্রিকার বিপক্ষেও নেই সাকিব আল হাসান?

2

চলমান বিপিএল শেষেই আফগানিস্তানের বিপক্ষে সীমিত ওভারের হোম সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ দল। এরপর বিশ্রাম নেওয়ার সুযোগ নেই। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে তাদের মাটিতে ওয়ানডে ও টেস্ট সিরিজ খেলতে সেখানে উড়াল দেবেন ক্রিকেটাররা। তবে নতুন শঙ্কা দেখা দিয়েছে সাকিব আল হাসানকে নিয়ে। বুধবার বাংলাদেশের বিপক্ষে হোম সিরিজের চূড়ান্ত সময়সূচি ঘোষণা করেছে ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা (সিএসএ)। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ হবে আইসিসির টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অধীনে। তিনটি ওয়ানডেও আইসিসি ওডিআই সুপার লিগের অন্তর্ভুক্ত। দুই দলের জন্যই তাই সিরিজটা গুরুত্বপূর্ণ। ১৮ মার্চ প্রথম ওয়ানডে দিয়ে সিরিজ শুরু এবং শেষ হবে ৮-১২ এপ্রিল দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট দিয়ে। এর মাঝে ২৭ মার্চ থেকে আইপিএল শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। যেখানে দল পাওয়া এবং সাকিবের খেলার সম্ভাবনা অনেক বেশি। এমতাবস্থায় শঙ্কা জেগেছে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সাকিব আল হাসান টেস্ট খেলবেন কি না! যদিও বিষয়টি নিয়ে এখনো বিসিবির সঙ্গে আলোচনা করেননি এই অলরাউন্ডার। তবে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের খবর, সাকিবের টেস্ট খেলার সম্ভাবনা খুব একটা নেই। বিষয়টি নিয়ে এবার কথা বলেছেন জাতীয় দলের টিম ডিরেক্টর ও বিসিবি পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজন। চলমান বিপিএলে সাকিবের দল ফরচুন বরিশালের প্রধান কোচ সুজন।

তাইতো বৃহস্পতিবার মিরপুরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হলে অবধারিতভাবেই প্রসঙ্গটি চলে আসে। খালেদ মাহমুদ সুজন বলেন, ‘আমিতো চাই সাকিব খেলুক (টেস্টে)। কিন্তু তারও কিছু চিন্তা আছে হয়তোবা, যেটা ও বোর্ডে আলাপ করবে অবশ্যই। এটা এখনো শিওর না, ও কতটুকু সময় দিতে পারবে। ওয়ানডে তো খেলবেই, টেস্ট খেলবে কি না তা এখনো ঠিক হয়নি।’ এর আগে বুধবার বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স বিভাগের চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস ক্রিকবাজকে বলেছেন, ‘দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে নিশ্চিতভাবেই ওয়ানডে খেলবে সাকিব। তবে টেস্ট সিরিজে খেলার বিষয়ে কিছুই বলেনি। মে মাসে হোমে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুই টেস্ট খেলবেন এ অলরাউন্ডার।’