ট্রাম্পকে নিয়ে বিতর্ক করবেন ব্রিটিশ এমপিরা

49

WASHINGTON, DC - JULY 23:  Donald Trump listens at the Trump International Hotel Washington, D.C Groundbreaking Ceremony at Old Post Office on July 23, 2014 in Washington, DC.  (Photo by Paul Morigi/WireImage)

যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান পার্টির মনোনয়নপ্রত্যাশী ডোনাল্ড ট্রাম্প যেন যুক্তরাজ্যে প্রবেশ করতে না পারেন, সে জন্য নিষেধাজ্ঞা জারির দাবি উঠেছে। এর পক্ষে-বিপক্ষে ভোট দিয়ে নিজেদের মতামত জানাবেন যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টের সদস্যরা (এমপি)। বিবিসি বলছে, মঙ্গলবার এক বৈঠকে পার্লামেন্টের হাউস অব কমন্সের পিটিশন কমিটি এই ইস্যুটি নিয়ে একটি বিতর্ক করার সিদ্ধান্ত নেন। ১৮ জানুয়ারি ওয়েস্টমিনিস্টার হলে বিতর্কটি অনুষ্ঠিত হবে। ব্রিটিশ লেবার দলীয় এমপি পল ফ্লিন বিতর্কে নেতৃত্ব দিবেন। প্রায় পাঁচ লাখ ৬৮ হাজার ব্রিটিশ নাগরিকের সই করা ওই গণপিটিশনে যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী ডোনাল্ড ট্রাম্পকে যেন যুক্তরাজ্যে প্রবেশ করতে দেয়া না হয় সেই দাবি জানানো হয়েছে। এদিকে, যুক্তরাজ্যে ট্রাম্পের প্রবেশ নিষিদ্ধ করতে অনলাইনে একটি নাগরিক পিটিশন দায়ের করা হয়েছে। একটি বিতর্ক আয়োজনের জন্য কোনো একটি বিষয়ের পক্ষে যেখানে এক লাখ স্বাক্ষর প্রয়োজন হয়, সেখানে গত ৮ ডিসেম্বর থেকে শুরু হওয়া পিটিশনে পাঁচ লাখ ৬৮ হাজারের বেশি মানুষ ট্রাম্পকে নিষিদ্ধের পক্ষে স্বাক্ষর করেছেন। পিটিশনে বলা হয়, যাঁরা কথার মাধ্যমে ঘৃণা ছড়ান, তাঁদের যুক্তরাজ্যে প্রবেশ করতে দেওয়া হয় না। এর আগেও এমন ঘটনা ঘটেছে। এই নিয়ম যুক্তরাজ্যে প্রবেশ করতে ইচ্ছুক যেকোনো ব্যক্তির জন্যই বলবৎ থাকা উচিত।
ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনও ট্রাম্পের সমালোচনা করেছেন। কিন্তু ব্রিটেনে ট্রাম্পের বড় ধরনের ব্যবসায়িক স্বার্থ রয়েছে, তাই ক্যামেরন ট্রাম্পের উপর এ ধরনের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা উচিত হবে না বলে মন্তব্য করেছেন। ক্ষমতায় গেলে যুক্তরাষ্ট্রে মুসলিমদের প্রবেশ বন্ধ করবেন বলে ট্রাম্পের দেওয়া বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে তাঁকে ‘বেকুব’ বলে সম্বোধন করেছিলেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন। এ ছাড়া মুসলিমবিরোধী বিভিন্ন ধরনের বক্তব্য দিয়ে সমালোচিত হয়েছেন ট্রাম্প। এসব ঘৃণামূলক বক্তব্য দেওয়ার কারণেই ট্রাম্পকে যুক্তরাজ্যে প্রবেশ করতে দিতে রাজি নন দেশটির অসংখ্য নাগরিক।