‘টেস্ট ক্রিকেটের ‘দুর্দিনের’ জন্য টি-টোয়েন্টি দায়ী’

4

দক্ষিণ আফ্রিকা ও ভারতের মধ্যকার টেস্ট ক্রিকেট সিরিজটি দুই ম্যাচে শেষ হওয়ার কারণে বিরক্তি প্রকাশ করেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক ক্রিকেটার এবি ডি ভিলিয়ার্স। এমন পরিস্থিতির জন্য টি-টোয়েন্টি ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটকে দায়ী করেছেন তিনি। দুই ম্যাচের সিরিজ ১-১ সমতায় শেষ করেছে ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকা। প্রথম ম্যাচে সেঞ্চুরিয়নের স্বাগতিক ভারতকে ইনিংস ব্যবধানে হারিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। তবে কেপটাউনে নাটকীয় এক টেস্ট ম্যাচ দেখলো ক্রিকেটপ্রেমীরা। দুই দিনে শেষ হওয়া এই টেস্টে ভারত ৭ উইকেটে জিতে দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে সিরিজের ট্রফি ভাগাভাগি করেছে। ভারতের বিপক্ষে তৃতীয় টেস্ট ম্যাচ খেলতে না পারায় হতাশার কথা জানিয়েছেন ডি ভিলিয়ার্স।

একইসাথে টেস্ট খেলার ভবিষ্যৎ নিয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন ‘৩৬০ ডিগ্রি’ নামে খ্যাত সাবেক এই প্রোটিয়া তারকা। নিজের ইউটিউব চ্যানেলে ডি ভিলিয়ার্স বলেন, ‘তৃতীয় টেস্ট অনুষ্ঠিত না হওয়ায় আমি খুশি নই। এর জন্য বিশ্বের টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট, আইসিসি ও শিডিউলকে আপনার অবশ্যই দায়ী করতে হবে। আমি জানি না, কাকে আসলে দোষারোপ করা যায়। কিন্তু আমি এটি বুঝতে পারি, এখানে ভুল কিছু ঘটছে। আপনি যদি সবগুলো দলকে প্রতিযোগিতায় নামাতে চান এবং সেরা দলকে বাছাই করে নিতে চান, তাহলে অবশ্যই কিছু জিনিসে পরিবর্তন আনতে হবে।’ এর আগে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজের জন্য ৭ নতুন মুখ নিয়ে স্কোয়াড ঘোষণা করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা।

দলের বড় তারকারা রয়ে গেছেন এসএ২০ ফ্র্যাঞ্চাইজি খেলার জন্য। অধিনায়ক করা হয়েছে, টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক না পাওয়া ব্যাটার নেইল ব্রান্ডকে। দক্ষিণ আফ্রিকার এমন কা-ে টেস্ট ক্রিকেটের ভবিষ্যৎ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন সাবেক কিংবদন্তি ক্রিকেটাররা। এমন সমস্যা সমাধানে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে কমপক্ষে তিন-ম্যাচের সিরিজ বাধ্যতামূলক করার পরামর্শ দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী নিক হকলি। এ বিষয়ে ডি ভিলিয়ার্স বলেন, ‘এটি (দক্ষিণ আফ্রিকার স্কোয়াড ঘোষণা) ক্রিকেটবিশ্বে একটি সতর্কবার্তা পাঠিয়েছে। এর মাধ্যমে এটি নিশ্চিত হয়েছে, টেস্ট ক্রিকেট আসলেই চাপে আছে, এমনকি ওয়ানডে ক্রিকেটও। সবকিছু টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটকে নিয়ে আবর্তিত হচ্ছে। খেলোয়াড়, বোর্ড এবং কোচ যেদিকে বেশি অর্থ উপার্জন করতে পারবেন ভাবছেন, সেদিকেই মনোযোগ দিচ্ছেন। আপনি তাদের ভবিষ্যৎ এবং পরিবার নিয়ে ভাবনাকে কোনোভাবেই দোষারোপ করতে পারেন না।’