টিপ টিপ বারসা পানি : রাভিনা নাকি ক্যাটরিনা এগিয়ে

6

নাচে-গানে বলিউডের আলাদা সুনাম আছে। বিশেষ করে বলিউডে কিছু গানের সঙ্গে নায়িকাদের নাচ ভিন্ন মাত্রা যোগ করেছে; যেগুলো সিনেমাপ্রেমীদের কাছে ইতিহাস হয়ে আছে। ‘এক দো তিন’ এই গান যেমন মাধুরী দিক্ষীত ছাড়া কল্পনা করা যায় না, তেমনি ‘টিপ টিপ বরসা পানি’ রাবিনা ট্যান্ডনের ক্যারিয়ারে সবচেয়ে আলোচিত একটি কাজ। অক্ষয় কুমার ও রাভিনা ট্যান্ডন অভিনীত ‘মোহরা’ (১৯৯৪) সিনেমার জনপ্রিয় এই গান দর্শক-শ্রোতাদের মন জয় করে নিয়েছিল। সম্প্রতি ২৭ বছর পর আবারো নতুন আঙ্গিকে তৈরি হয়েছে এই গান। তবে এবার রাভিনাকে নয়, এই গানে বৃষ্টিতে ভিজে আবেদনময়ী ভঙ্গিতে কোমর দোলাতে ক্যাটরিনা কাইফকে দেখা গেছে। রোহিত শেঠি পরিচালিত ‘সূর্যবংশী’ সিনেমার জন্য গানটি কোরিওগ্রাফি করেছেন ফারাহ খান। নতুন এই সংস্করণ কম্পোজ করেছেন তানিস্ক বাগচী।

প্রথম গানের পাশাপাশি নতুন সংস্করণটিতেও কণ্ঠ দিয়েছেন উদিত নারায়ণ ও অলকা ইয়াগনিগ। গানটি প্রকাশের পর থেকেই রাভিনার সঙ্গে ক্যাটরিনার তুলনা শুরু হয়েছে। অনেকেই এই গানে রাভিনাকে এগিয়ে রাখলেও ক্যাটরিনার প্রশংসা করেছেন। নেটিজেনদের মধ্যে মূল গানটিতে রাভিনা একটি ভিন্ন মাত্রা যোগ করেছিলেন। নাচের স্টেপ থেকে শুরু করে পোশাক সব কিছুতেই সেই সময় গানটি দর্শক-শ্রোতাদের মাঝে বাড়তি উন্মাদনা তৈরি করে। এদিকে ক্যাটরিনা ও অক্ষয়ের নতুন এই সংস্করণটিকে ‘দে ধানা ধান’ সিনেমার ‘গালে লাগ যা’ গানের সঙ্গে তুলনা করেছেন কেউ কেউ। সেই গানটিতেও অক্ষয় ও ক্যাটরিনাকে দেখা গিয়েছিল।

কোরিওগ্রাফার ফারাহ খান জানান, অক্ষয়-ক্যাটরিনার ‘টিপ টিপ বারসা পানি’ গানটি প্রকাশের পর তাকে সবার আগে ফোন কল করেছেন রাভিনা। তিনি বলেন, ‘রাভিনা প্রথম ব্যক্তি, যিনি জানান, গানটি চমৎকার হয়েছে এবং ক্যাটরিনা অসাধারণ লাগছে।’ ইউটিউবে নতুন সংস্করণটির প্রশংসা করেছেন নেটিজেনরা। একজন লিখেছেন, ‘পুরাতন গানগুলো এভাবেই সিনেমায় সংযুক্ত করা যেতে পারে। পুরোনো গান ঠিক রেখে শুধু প্রযুক্তির সংযোজন। খুবই ভালো লেগেছে।’ অপর একজন লিখেছেন, ‘ক্যাটরিনার টিপ টিপ বারসা পানি’ গানের প্রয়োজন নেই। তার ‘দে ধানা ধান’ সিনেমার ‘গালে লাগ যা’ রয়েছে।’ অন্য একজন মন্তব্য করেছেন, ‘সবাই এখানে রাভিনা ট্যান্ডনের এনার্জির কথা বলছেন, কিন্তু কেউ এই সত্যটা মানতে চাইছে না যে, ক্যাটরিনাকে কী পরিমাণ চাপ নিতে হয়েছে। কারণ তিনি ভালো করেই জানতেন দু’টো গানের সঙ্গে তুলনা হবে। এই মন্তব্যটি ক্যাটরিনার কঠোর পরিশ্রম ও অসাধারণ নাচের জন্য হয়েছে। অক্ষয় ও ক্যাটরিনার নাচের জন্য শুভকমনা।’