জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি : জেলায় যাত্রীবাহী বাস চলেছে কম

21

জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির কারণে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-রাজশাহী, নাচোল-গোমস্তাপুর রুটে চলাচলকারী লোকাল বাস বন্ধ রয়েছে। তবে সীমতি পরিসরে আগের ভাড়ায় চলাচল করেছে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-রাজশাহী রুটের গেটলক ও মহানন্দা বাস সার্ভিসের গাড়িগুলো। তবে তা ছিল কম।
গত শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টা থেকে দেশে ডিজেল, কেরোসিন, অকটেন ও পেট্রোলের দাম বৃদ্ধির ঘোষণার পরে ব্যবসায় লোকসানের আশঙ্কায় এসব রুটে চলাচলকারী লোকাল বাস শনিবার চালাননি বাসমালিকরা।
শনিবার বেলা ১১টায় বিশ্বরোড মোড়ে গেটলক কাউন্টার টিকেট মাস্টার মোহাম্মদ আলি জানান, তেলের দাম বাড়লেও আগের ভাড়ায় গেটলক ও মহানন্দা বাসের টিকেট বিক্রি করছেন। তবে স্বাভাবিকের তুলনায় বাস চলাচল কিছুট কম।
এদিকে নাচোল-রহনপুর রুটের লোকাল বাসগুলো লোকসানের আশঙ্কায় বন্ধ রেখেছেন বাসমালিকরা। চাঁপাইনবাবগঞ্জ-নাচোল রুটে দু-একটি বাস সকালে ছেড়ে গেলেও বেলা ১১টা থেকে বন্ধ রয়েছে। বিশ্বরোড মোড়ে নাচোল বাস কাউন্টারও বন্ধ দেখা গেছে।
এছাড়া চাঁপাইনবাবগঞ্জ-শিবগঞ্জ-ভোলাহাট রুটে চলাচলকারী ডিজেলচালিত মাহেন্দ্র গাড়িগুলো আগের ভাড়ায় চলাচল করলেও তেলের মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে বলে জানান মাহিন্দ্র চালকরা।
জেলা সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক হামিদুর রহমান নান্নু জানান, দুয়েকটি গেটলক চলাচল করলেও প্রায় সব গাড়িই বন্ধ রয়েছে। বিকাল ৫টায় (শনিবার) কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ সরকারের সাথে আলোচনা করে ভাড়া বাড়ানোর বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানাবেন। আঞ্চলিক রুটের লোকাল বাস বন্ধ থাকার বিষয়ে তিনি বলেন, ট্রিপে গাড়ি পাঠিয়ে তেলের দামই উঠাতে পারছে না, তাই মালিকরা লোকসানের কারণে ট্রিপ বাতিল করেছে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ-নওগাঁ রুটের বাসগুলোও বন্ধ রয়েছে।
এদিকে লোকাল বাসগুলো বন্ধ থাকায় আন্তঃউপজেলা রুটে চলাচলকারী যাত্রীরা বিকল্প ব্যবস্থায় ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা ও মাহেন্দ্রতে যাতায়াত করেছেন। তবে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-রাজশাহী রুটের যাত্রীরা কিছুটা বিপাকে পড়ে।
অন্যদিকে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির খবর ছড়িয়ে পড়লে মোটরসাইকেল চালকরা গত শুক্রবার রাত ১০টার পরই পেট্রোল পাম্পগুলোয় হুমড়ি খেয়ে পড়ে।