জেলায় একদিনে লক্ষাধিক মানুষ নিলেন করোনার প্রথম ডোজ

10

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ১ লাখ ২ হাজার ৮৯ জন বিভিন্ন বয়সের মানুষ করোনা ভাইরাস প্রতিরোধক টিকা নিয়েছেন। যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে দ্বিগুণেরও বেশি। জেলায় সিনোভ্যাক ও সিনোফার্মের টিকা প্রদান করা হয়। শনিবার সারাদেশে একযোগে ১ দিনে ১ কোটি করোনার গণটিকাদান কর্মসূচির অংশ হিসেবে জেলায় প্রথম ডোজের এই টিকা প্রদান করা হয়।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার ৫টি উপজেলা ও ৪টি পৌরসভার মোট ১৮৬টি টিকাদান কেন্দ্রসহ সকল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সকাল ৯টা থেকে প্রথম ডোজ টিকা প্রদান করা হয়। এর মধ্যে জেলার সদর উপজেলায় ৩৪ হাজার ৮৯ জন, শিবগঞ্জে ২৮ হাজার ১১২ জন, গোমস্তাপুরে ২০ হাজার ৩৭ জন, নাচোলে ১২ হাজার ৮৯ জন ও ভোলাহাট উপজেলায় ৭ হাজার ৭৬২ জনকে করোনার প্রথম ডোজ টিকা প্রদান করা হয়। প্রতিটি কেন্দ্রে ২ জন টিকাদান কর্মীসহ ৩ জন করে স্বেচ্ছাসেবক নিয়োজিত ছিলেন।
সিভিল সার্জন ডা. এসএম মাহমুদুর রশিদ জানান, জেলায় ৪৫ হাজার জনকে টিকাদানের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল। তবে লক্ষ্যমাত্রা দ্বিগুণ ছাড়িয়ে গেছে।
সিভিল সার্জন আরো জানান, আগামীকাল রবিবার ও পরশু সোমবার টিকাদান কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে। তবে শুধুমাত্র নির্ধারিত টিকাদান কেন্দ্রগুলোতেই টিকা প্রদান করা হবে।
বিভিন্ন টিকা কেন্দ্রের সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করেন জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এ কে এম গালিভ খানসহ অন্যান্য কর্মকর্তা।
অপর দিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর মেয়র মোখলেসুর রহমান টিকাদান কর্মসূচিকে সফল করতে আগের দিন মাইকিংয়ের ব্যবস্থা করেন এবং গতকাল শনিবার বিভন্ন টিকাদান কেন্দ্র পরিদর্শন করেন।
অন্যদিকে সিভিল সার্জন ডা. এসএম মাহমুদুর রশিদসহ স্বাস্থ্যবিভিাগের কর্মকর্তারা বিভিন্ন টিকা কেন্দ্র পরিদর্শন করেন।
প্রায় প্রতিটি কেন্দ্রেই ছিল টিকা নিতে আসাদের উপচেভড়া। শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে পুলিশের পাশাপাশি গ্রামপুলিশও দায়িত্ব পালন করেন টিকা কেন্দ্রগুলোতে।