জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের মামলায় নিজেকে নির্দোষ দাবি খালেদা জিয়ার

128

khaledaজিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের তিন কোটি ১৫ লাখ টাকা আত্মসাতের মামলায় নিজেকে নির্দোষ দাবি করে আদালতের কাছে সুবিচার চেয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। বৃহস্পতিবার ঢাকার তিন নম্বর বিশেষ জজ আদালতে হাজির হয়ে আত্মপক্ষ সমর্থন করে খালেদা জানিয়েছেন, তিনি সাফাই সাক্ষী হাজির করতে চান। আত্মপক্ষ সমর্থনের আগে এ মামলার ৩২ জন সাক্ষীর জবানবন্দি তাকে পড়ে শোনানো হয়। পরে খালেদা প্রায় ১৫ মিনিট তার যুক্তি বিচারকের সামনে তুলে ধরে বলেন, ওইসব সাক্ষ্যে যে বক্তব্য এসেছে তা সঠিক নয়। এদিন শুনানিতে একটি লিখিত বক্তব্যও নিয়ে এসেছিলেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা। দিনের শুনানি শেষে বিচারক আবু আহমেদ জমাদার ৮ ডিসেম্বর এ মামলার পরবর্তী দিন ঠিক করে দেন। ওইদিন খালেদা জিয়া তার আত্মপক্ষ সমর্থনে আরও বক্তব্য দেবেন। পুরান ঢাকার বকশিবাজারে কারা অধিদপ্তরের মাঠে এ আদালতেই জিয়া এতিমখানা ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার বিচার চলছে। খালেদার পাশাপাশি তার ছেলে তারেক রহমানও এ মামলার আসামি। এতিমখানা ট্রাস্ট মামলায় এদিন তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের উপ-পরিচালক হারুন অর রশিদকে জেরা করেন বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেকের আইনজীবীরা। বিচারের শেষ পর্যায়ে থাকা এ মামলাতেও ৮ ডিসেম্বর পরবর্তী তারিখ রাখা হয়েছে। জিয়া দাতব্য ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় আত্মপক্ষ সমর্থনের জন্য গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১২টার পর তিনি পুরান ঢাকার বকশিবাজারের কারা অধিদপ্তরের মাঠে ঢাকার তিন নম্বর বিশেষ জজ আদালতে হাজির হন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। বিচারক আবু আহমেদ জমাদারের এ আদালতেই জিয়া এতিমখানা ট্রাস্টের অর্থ আত্মসাতের মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের উপ-পরিচালক হারুন অর রশিদকে জেরা করেন বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের আইনজীবীরা। বিচারের শেষ পর্যায়ে থাকা এ দুই মামলায় এর আগে সর্বশেষ শুনানি হয় গত ২১ নভেম্বর। সেদিন খালেদার পক্ষে তার আইনজীবী সময়ের আবেদন করলে দাতব্য ট্রাস্ট মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসনের আত্মপক্ষ সমর্থন পিছিয়ে যায়। আর এতিমখানা ট্রাস্ট মামলায় খালেদার ছেলে তারেক রহমানের পক্ষে তার আইনজীবী বোরহান উদ্দিন সেদিন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের উপ-পরিচালক হারুন অর রশিদকে আংশিক জেরা করেন। সেদিনই বিচারক আবু আহমেদ জমাদার মামলা দুটির শুনানির জন্য ১ ডিসেম্বর দিন ঠিক করে দেন। সে অনুযায়ী, গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় খালেদা গুলশানের বাসা ‘ফিরোজা’ থেকে আদালতের পথে রওনা হন বলে তার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া জানান। এদিকে খালেদার হাজিরার দিন থাকায় সকাল থেকেই আদালত এলাকার নিরাপত্তা জোরদার করা হয়। বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরাও আদালত প্রাঙ্গণে হাজির হন। জিয়া দাতব্য ট্রাস্টের নামে আসা তিন কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ২০১০ সালের ৮ অগাস্ট তেজগাঁও থানায় এই মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।