জাতিসংঘের মধ্যস্থতায় ইয়েমেনে দুই মাসের যুদ্ধবিরতি

6

ইয়েমেনে যুদ্ধরত পক্ষগুলো দুই মাসের যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয়েছে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ। জাতিসংঘের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৬ সালে শুরু হওয়া এ যুদ্ধে এখন পর্যন্ত প্রায় চার লাখ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। যুদ্ধ শুরুর পর এই প্রথম যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয়েছে পক্ষগুলো। সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ খবর জানানো হয়েছে। জাতিসংঘ বলছে, যুদ্ধে নিহতদের মধ্যে ৬০ শতাংশ মারা গেছে ক্ষুধাসহ স্বাস্থ্যসেবা এবং নিরাপদ পানির অভাবে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বিশ্বের অনেক মুসলিম দেশে পবিত্র মাহে রমজান শুরু হওয়ায় স্থানীয় সময় শনিবার বিকেল ৪টা থেকে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট ও ইরান সমর্থিত হুতি বিদ্রোহীদের মধ্যে স্বাক্ষরিত এ যুদ্ধবিরতি কার্যকর হবে। এদিকে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন জাতিসংঘের মধ্যস্থতায় হওয়া এ যুদ্ধবিরতিকে স্বাগত জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘এটি (যুদ্ধবিরতি) অবশ্যই গুরত্বপূর্ণ পদক্ষেপ, তবে এটিই যথেষ্ট নয়। যুদ্ধিবিরতি অবশ্যই মেনে চলতে হবে।’ সৌদি আরবের রিয়াদে শান্তি আলোচনার দ্বিতীয় দিন শুক্রবার এ যুদ্ধবিরতির ঘোষণা দেন জাতিসংঘের বিশেষ দূত হ্যান্স গ্র্যান্ডবার্গ।

এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘ইয়েমেনে অভ্যন্তরীন ও সীমানাজুড়ে সব ধরনের স্থল, নৌপথে সামরিক অভিযান ও বিমান হামলা বন্ধ করতে পক্ষগুলো সম্মত হয়েছে।’ জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস যত দ্রুত সম্ভব চুক্তি বাস্তবায়নের জন্য সব পক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। সৌদি নিয়ন্ত্রিত জোট ইয়েমেনের সরকারের সমর্থনে গত সাত বছর ধরে হুতি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে বলে দাবি করছে। অন্যদিকে, হুতি বিদ্রোহীরা সৌদি আরবসহ তাদের জোটভুক্ত দেশে ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে।