চাল-গম আমদানি সহজ করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশ

2

চাল ও গম আমদানিতে নগদ মার্জিন সর্বনিম্ন করতে নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাবে খাদ্যশস্যের মূল্য সহনীয় পর্যায়ে রাখতে এবং সরবরাহ বাড়াতে এক সার্কুলারে এমন নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।
বুধবার বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগের জারি করা সার্কুলারটি দেশের সব বাণিজ্যিক ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো হয়েছে।
সার্কুলারে বলা হয়েছে, সাম্প্রতিক সময়ে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের নেতিবাচক প্রভাবে আন্তর্জাতিক বাজারে সরবরাহ ব্যবস্থা বিঘিœত হওয়ায় খাদ্যশস্যের মূল্য বেড়ে যাওয়ার বিষয়টি পরিলক্ষিত হচ্ছে। এছাড়া আন্তর্জাতিকভাবে পণ্য পরিবহন ব্যয় বেড়ে যাওয়ায় খাদ্যশস্যের মূল্যে নেতিবাচক প্রভাব দেখা যাচ্ছে। ভবিষ্যৎ খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের জন্য দেশের প্রধান খাদ্যশস্য চাল ও গমের মূল্য সহনীয় পর্যায়ে রাখাসহ নিরবচ্ছিন্ন সরবরাহ অব্যাহত রাখা আবশ্যক। এই অবস্থায় অভ্যন্তরীণ বাজারে চাল ও গমের মূল্য সহনীয় পর্যায়ে রাখা এবং সরবরাহ ব্যবস্থা নিরবচ্ছিন্ন রাখার লক্ষে চাল ও গম আমদানির ঋণপত্র স্থাপনের ক্ষেত্রে নগদ মার্জিনের হার ব্যাংকার-গ্রাহক সম্পর্কের ভিত্তিতে ন্যূনতম পর্যায়ে রাখার জন্য নির্দেশনা দেওয়া হলো।
এই নির্দেশনা দ্রুত কার্যকর হবে এবং পরের নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত বলবৎ থাকবে বলে উল্লেখ করা হয়েছে সার্কুলারে।
এক সপ্তাহের মধ্যে রমজানে ব্যবহৃত আট পণ্য আমদানি করতে নগদ মার্জিন সর্বনিম্নে নামিয়ে এনে আমদানি করা এবং এসব পণ্য বাকিতে এলসি খোলার সুযোগ দিয়ে ভিন্ন দুটি সার্কুলার জারি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এরপরই দুই প্রধান পণ্য চাল ও গমের আমদানিতে নগদ মার্জিন সর্বনিম্নে নামিয়ে আনার নির্দেশনা দিল বাংলাদেশ ব্যাংক।
বাংলাদেশ ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট বিভাগের দায়িত্বরত এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, দেশের প্রধান দুই খাদ্যশস্যের সরবরাহ নিশ্চিত করতে সরকারের উদ্যোগ বাস্তবায়নের লক্ষে এই নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।