চার বছর পর একসঙ্গে ‘রঙের মানুষ’র দুই বন্ধু

6

টিভি নাটকে ফোক ঘরানার সফল কাজের জন্য ইতিহাস হয়ে থাকবেন ‘রঙের মানুষ’, ‘ভবের হাট’-খ্যাত দুই বন্ধু নাট্যকার মাসুম রেজা এবং নির্মাতা-অভিনেতা সালাহউদ্দিন লাভলু। দু’জনে এক হয়ে প্রচুর একক ও সিরিজ নাটক করেছেন। তবে মাঝে লম্বা সময় অজানা কারণে একে অপর থেকে খানিকটা দূরে ছিলেন দুই বন্ধু। অবশেষে সেই দূরত্ব ঘুচল। টানা চার বছর আবারও মাসুম রেজার চিত্রনাট্য নিয়ে শুটিং মাঠে নামলেন সালাহউদ্দিন লাভলু। নির্মাণ করছেন ঈদের জন্য বিশেষ ধারাবাহিক ‘ঝড়ে বক পড়ে’। লাভলু জানান, নাটকটির শুটিং চলছে। যার অন্যতম চরিত্রে অভিনয় করছেন জে এস হিমি। পটভূমি যথারীতি প্রেম ও ফোক। জানান, নাটকটি হচ্ছে ৬ পর্বের গল্পে। আবার একসঙ্গে কাজ করা প্রসঙ্গে মাসুম রেজা বলেন, ‘হঠাৎ লাভলুর ফোন পেলাম। বললো, বন্ধু ঈদের নাটক লিখে দিতে হবে। হিসেব করে দেখলাম প্রায় চার বছর লাভলুর সাথে কাজ করিনি। তাই কোনও কিছু না ভেবেই এই চিত্রনাট্যটা তৈরি করে দিলাম।’ কিন্তু কেন দুই বন্ধুর এই দীর্ঘ দূরত্ব? জবাবে মাসুম রেজা হেসে ওঠেন। বলেন, ‘এমনি এমনি। স্পষ্ট কোনও কারণ নেই। লাভলু লিখতে বলেনি, তাই লিখিনি। এখন বললো, লিখে দিলাম।’ ‘ঝড়ে বক পড়ে’ নাটকটির গল্পে দেখা যাবে, জ্যোতিষ বাড়ির বড় ছেলের কেরামতি। মূল জ্যোতিষ মারা যাওয়ার পর বাড়ির বড় ছেলে যা বলে তাই ঘটে! বিষয়টি অনেকটাই ঝড়ে বক পড়ার মতো। একই বাড়ির ছোট ছেলে ভালোবাসে গ্রামের সুন্দরী হিমিকে। হিমি আবার ভালোবাসে গ্রামের এক ফুটবলারকে। তৈরি হয় প্রেম ও জ্যোতিষ বিদ্যার জটিল সমীকরণ। নির্মাতা সালাহউদ্দিন লাভলু জানান, ঢাকার অদূরে নাটকটির শুটিং চলছে এখন। এই ঈদে একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে টানা ৬ দিন সম্প্রচার হচ্ছে এটি। মাসুম-লাভলু জুটির সর্বশেষ ধারাবাহিক হয় ২০১৮ সালে। ‘দ্য ভিলেজ ইঞ্জিনিয়র’ নামের এই কাজটি প্রচার হয় আরটিভিতে।