‘চাদর’ নিয়ে কানে যাবেন সাইমন-বুবলী

2

বিশ্ব চলচ্চিত্রের ঐতিহ্যবাহী ও মর্যাদাপূর্ণ কান চলচ্চিত্র উৎসব। পৃথিবীর অন্যতম প্রাচীন ও প্রভাবশালী চলচ্চিত্র উৎসবও এটি। দক্ষিণ ফ্রান্সের অপরূপ শহর কানে প্রতিবছর সাধারণত মে মাসে এটি পালিত হয়। এই উৎসবের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরেই জড়িয়ে আছে বাংলাদেশি সিনেমার নাম। প্রতিবারের ন্যায় এবারও বাংলাদেশ থেকে থাকবে অংশগ্রহণ। সবকিছু ঠিক থাকলে এবার ‘চাদর’ সিনেমা নিয়ে কানের লাল গালিচায় প্রথমবারের মতো পা রাখবেন সাইমন সাদিক ও শবনম বুবলী। এমনটাই জানা গেল নানা সূত্রে। দীর্ঘ ৩৫ বছর পর প্রযোজনায় এসেছে বিএফডিসি। সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত আলোচিত এই সিনেমার নাম ‘চাদর’। এ সিনেমা দিয়ে দীর্ঘদিন পর সিনেমা নির্মাণ করলেন গুণী নির্মাতা জাকির হোসেন রাজু। ২০২২ সালের মাঝামাঝিতে সিনেমাটির ঘোষণা আসে। এরপর সেখানে প্রধান দুই চরিত্রে জুটি বেঁধে কাজ করেন সাইমন ও বুবলী। এরইমধ্যে সিনেমার কাজ শেষ। সেন্সর ছাড়পত্র হাতে এলেই ছবিটির মুক্তির তারিখ জানাবে এফডিসি। তবে দেশে মুক্তির আগেই সিনেমাটি অংশ নেবে কান চলচ্চিত্র উৎসবে। জাকির হোসেন রাজু বলেন, আমি নিশ্চিতভাবে কান চলচ্চিত্র উৎসবে অংশ নেওয়ার ব্যাপারটি বলতে পারছি না।

তবে ছবির প্রযোজক এফডিসি সূত্রে জেনেছি সেই চেষ্টা চলছে। এফডিসি কর্তৃপক্ষই এ বিষয়ে বিস্তারিত বলতে পারবে। তবে হ্যাঁ আমি এটুকু বলতে পারি ‘চাদর’ সিনেমাটি যে দেশের দর্শকই দেখবে তাদের ভালো লাগবে।’’ ছবির কাজ প্রসঙ্গে ‘জীবন সংসার’খ্যাত এই নির্মাতা বলেন, ‘‘আমি খুব আনন্দের সঙ্গে এ ছবির কাজ করেছি। সময়মতো পরিকল্পনা অনুযায়ী ‘চাদর’ সিনেমার কাজটি শেষ করতে পেরে আরও বেশি আনন্দ পেয়েছি। এটা সম্ভব হয়েছে ছবির নায়ক-নায়িকা থেকে শুরু করে পুরো টিমের একান্ত প্রচেষ্টার জন্য। সবাই খুব আন্তরিকতা নিয়ে কাজ করেছেন। আমি তাদের সবাইকে ধন্যবাদ জানাই। একটি ভালো টিম একজন নির্মাতার জন্য খুব জরুরি। আমি সেটা পেয়েছি। প্রযোজক হিসেবে এফডিসি কর্তৃপক্ষও ছিল আন্তরিক।’’ ‘চাদর’ কানে যাচ্ছে কি না, জানতে গেল গত রোববার যোগাযোগ করা হয় এফডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালকের সঙ্গে। জানা যায়, তিনি মন্ত্রণালয়ের কাজে ব্যস্ত রয়েছেন। এ প্রসঙ্গে আলাপ হয় এফডিসির ল্যাবরেটরি প্রধান মোহাম্মাদ রফিকুল ইসলামের সঙ্গে। তিনি নিশ্চিত করেন, আগামী কান চলচ্চিত্র উৎসবে অংশ নেবে ‘চাদর’।

বিএফডিসির এই কর্মকর্তা বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে সব প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। এরইমধ্যে ইংরেজি সাবটাইটেলের কাজ চলছে ছবিটির। সব কাজ গুছিয়ে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হবে।’ এই খবরে বেশ উচ্ছ্বসিত ছবির নায়ক সাইমন সাদিক। তিনি বলেন, ‘‘এ বিষয়ে আমিও কিছু আলোচনা শুনেছি। তবে নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারছি না। যদি সত্যিই এমনটা হয়, তবে তা নিঃসন্দেহে আমার জন্য দারুণ কিছু হবে। আমি সব সময় চেয়েছি ভালো গল্প ও চরিত্রে কাজ করে দর্শকের মনে জায়গা করে নিতে। আমার গুরু, যার হাত ধরে আমি সিনেমায় এসেছি, শ্রদ্ধেয় জাকির হোসেন রাজু স্যারের সঙ্গে যখনোই কোনো কাজ করেছি, সেটা আমার জন্য আশীর্বাদ হয়ে এসেছে। তিনি আমাকে তার ‘পোড়ামন’ ছবিতে কাজের সুযোগ দিয়েছিলেন। সেই সিনেমা আমার ক্যারিয়ারের টার্নিং পয়েন্ট হিসেবে কাজ করেছে।

এবার ‘চাদর’ করলাম, অনেক ভালো কিছুর আভাস পাচ্ছি শুরু থেকেই। এ সিনেমার গল্প ও নির্মাণ দর্শককে মুগ্ধ করবে। তার সঙ্গে দারুণ এক প্রাপ্তি হবে যদি ছবিটি নিয়ে আমরা কান চলচ্চিত্র উৎসবে যেতে পারি। এর আগে অনেকেই কানে বাংলাদেশের নাম উজ্জ্বল করেছে। এবার যদি আমি সেই তালিকার একজন সদস্য হতে পারি, এর চেয়ে আনন্দের আর কী হতে পারে। বিএফডিসি কর্তৃপক্ষকে অগ্রিম ধন্যবাদ রইল এই উদ্যোগ নেওয়ার জন্য।’’ ‘চাদর’ কান উৎসবে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে জেনে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করলেন অভিনেত্রী বুবলীও। তিনি বলেন, ‘দেশের প্রতিনিধি হিসেবে কানের লাল গালিচায় পা রাখাটা ক্যারিয়ারের জন্য সেরা মাইলফলক হবে বলে মনে করি।’ ‘চাদর’ সিনেমায় সাইমন-বুবলী ছাড়াও অভিনয় করেছেন মনিরা মিঠু, রাশেদ মামুন অপুসহ অনেকেই। এতে বেশ কিছু শ্রুতিমধুর গান পাবে দর্শক। গানগুলো তৈরি করেছেন এস আই শহীদ ও সোহেল রাজ।