চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর ও শিবগঞ্জের চরাঞ্চলে ডুবে গেছে ২ হাজার হেক্টর মাসকলাই

6

চাঁপাইবাবগঞ্জে সদর ও শিবগঞ্জ উপজেলার পদ্মার চরাঞ্চলের প্রায় ২ হাজার হেক্টর জমির মাসকলাই নিমজ্জিত হয়েছে। এছাড়া পেঁয়াজ, শাক-সবজি, তিল নিমজ্জিত হয়েছে। অসময়ে পদ্মা নদীতে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় এইসব ফসল নিমজ্জিত হয়েছে।
জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, জেলার সদর উপজেলার চরাঞ্চলের ৩ হাজার ৫৬০ জন কৃষকের ৫০০ হেক্টর মাসকলাই নিমজ্জিত হয়েছে। এছাড়া ৫০০ কৃষকের ৫০ হেক্টর জমির শাক-সবজি, ৩৬০ জন কৃষকের ৪৫ হেক্টর সরিষা, ৪০ জন কৃষকের ৫ হেক্টর তিল নিমজ্জিত হয়েছে।
অন্যদিকে শিবগঞ্জ উপজেলার পদ্মার চরাঞ্চলে ৩ হাজার ৪৭৫ জন কৃষকের ১ হাজার ৪৭০ হেক্টর জমির মাসকলাই, ১৫০ জন কৃষকের ১৬ হেক্টর জমির শাক-সবজি, ৫০ জন কৃষকের ৫ হেক্টর জমির পেঁয়াজ নিমজ্জিত হয়েছে।
জেলায় মাসকলাইয়ের আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয় ২১ হাজার ৫০৫ হেক্টর। লক্ষমাত্রা ছাড়িয়ে আবাদ হয় ২১ হাজার ৫৮৫ হেক্টর। এর মধ্যে নিমজ্জিত হয়েছে ১ হাজার ৯৭০ হেক্টর।
জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক ড. পলাশ সরকার এইসব তথ্য নিশ্চিত করে বলেনÑ অসময়ে পদ্মায় পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় চরাঞ্চলের ইউনিয়নগুলোর মাসকলাই, শাক-সবজিসহ অন্যান্য ফসলের ক্ষতি হয়েছে।
এদিকে চরাঞ্চলের কৃষকরা জানিয়েছেন, বন্যার পানিতে তাদের মাসকলাইসহ পেঁয়াজ ও শাক-সবজির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোখলেসুর রহমান বলেনÑ বুধবার ভোর ৬টা থেকে আজ বৃহস্পতিবার ভোর ৬টা পর্যন্ত পদ্মায় পানি বেড়েছে ৩ সেন্টিমিটার এবং মহানন্দায় ৫ সেন্টিমিটার। তবে আগামীকাল (আজ) শুক্রবার থেকে পানি কমতে শুরু করবে।