চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনে উপনির্বাচন ১ ফেব্রুয়ারি

132

সংসদীয় আসন ৪৪, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ (নাচোল-গোমস্তাপুর-ভোলাহাট) আসনে উপনির্বাচন আগামী ১ ফেব্রুয়ারি ইভিএমে ভোটগ্রহণের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হবে। বিএনপির সংসদ সদস্য মো. আমিনুল ইসলাম জাতীয় সংসদ থেকে পদত্যাগ করায় আসনটিকে শূন্য ঘোষণা করে উপনির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।
এই ঘোষণার পর রাজশাহীর আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও এই নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. দেলোয়ার হোসেন এ ব্যাপারে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেছেন।
গত ২০ ডিসেম্বর জারি করা গণবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, রিটার্নিং ও সহকারী কর্মকর্তার নিকট মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ ৫ জানুয়ারি, মনোনয়নপত্র বাছাই ৮ জানুয়ারি, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১৫ জানুয়ারি এবং ১ ফেব্রুয়ারি সকাল সাড়ে ৮টা থেকে বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। জেলা নির্বাচন অফিসসহ নাচোল, গোমস্তাপুর ও ভোলাহাট উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র দাখিল করা যাবে।
জানা গেছে, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ (নাচোল-গোমস্তাপুর-ভোলাহাট) আসনে উপনির্বাচনকে সামনে রেখে আওয়ামী লীগের কয়েকজন নেতা দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন। এই দৌড়ে সাবেক সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মু. জিয়াউর রহমান, সাবেক সংসদ সদস্য ও গোমস্তাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম মোস্তফা বিশ্বাস, গোমস্তাপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হুমায়ুন রেজা, সাবেক চেয়ারম্যান খুরশিদ আলম বাচ্চু, নাচোল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের, সৈয়কত জোয়ারদার, রাজশাহী জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার, অ্যাডভোকেট আফসার আলীসহ আরো অনেকের নাম শোনা যাচ্ছে। তবে কে পাবেন আওয়ামী লীগের টিকেট তা এখনো চূড়ান্ত হয়নি।
এদিকে গত ২২ ডিসেম্বর সংসদীয় আসন ৪৫, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ (সদর) আসন থেকে বিএনপির আরেক সংসদ সদস্য জাতীয় সংসদ থেকে পদত্যাগ করেছেন। ফলে এ আসনটিও শূন্য ঘোষণা করা হয়েছে। এ আসনেও উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
উল্লেখ্য, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার ৩টি সংসদীয় আসনের একটিতে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ (শিবগঞ্জ) আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ডা. সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল এবং ওই দুটিতে বিএনপির প্রার্থীরা নির্বাচিত হন।