চাঁপাইনবাবগঞ্জ শেখ হাসিনা সেতুর সঙ্গে সংযোগ সড়ক নির্মাণ কাজের উদ্বোধন

38

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার আওতাধীন মহানন্দা নদীর ‘শেখ হাসিনা’ সেতুর সাথে সংযোগ সড়ক নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় শেখ হাসিনা সেতু হতে বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দীন জাহাঙ্গীর সেতু পর্যন্ত সংযোগ সড়কের ১ম প্যাকেজের শূন্য হতে ৯০৬ মিটার রাস্তা নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৯ ডিসেম্বর) সকালে প্রধান অতিথি হিসেবে ফলক উন্মচোন করে এ কাজের উদ্বোধন করেন পৌরসভার মেয়র মো. মোখলেসুর রহমান। এ উপলক্ষে মিরের খইলানে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি বক্তৃতা করেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন, শেখ হাসিনা সেতুর সংযোগ সড়ক নির্মাণ শীর্ষক প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক মো. শাহানুর ও জেলা এলজিইডির সিনিয়র সহকারী প্রকৌশলী আহরাম আলী। পৌরসভার ১১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আবদুল হাইয়ের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী তৌফিকুল ইসলাম। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ আব্দুল জলিল ও সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ রোকনুজ্জামান রোকন, জেলা ছাত্র লীগের সভাপতি ডা. সাইফ জামান আনন্দ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন, পৌরসভার টাউন প্লানার ইমরান হোসেন।
অনুষ্ঠানে জানানো হয় প্রকল্পটি চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভা ও এলজিইডির যৌথ তত্ত্বাবধানে বাস্তবায়িত হবে। এই প্রকল্পের আওতায় রেহাইচর, চরনয়নশুকা ও শংকরবাটী মৌজায় ১৪ একরের বেশি ভূমি অধিগ্রহণ করা হয়েছে। যার এলএকেস নং-০১/২০১৯-২০ এবং অধিগ্রহণ মূল্য সত্তর কোটি পঁয়ষট্টি লক্ষ ছিয়াশি হাজার পাঁচশ সাত টাকা। এ প্রকল্পে ৩ দশমিক ১০ কিলোমিটার রাস্তার মধ্যে এই প্যাকেজে ৯০৬ মিটার নির্মাণ হবে। যার চুক্তিমূল্য দশ কোটি ষাট লক্ষ নয় হাজার তিনশ ছিয়াত্তর টাকা। রাস্তার নিচের স্তর ৬৫ ফুট এবং উপরে কার্পেটিং হবে ২২ফুট। এই প্যাকেজে কালভার্ট রয়েছে একটি। আগামী বছরের ৩ নভেম্বরের মধ্যে নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হওয়ার চুক্তি রয়েছে।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে পৌর মেয়র সরকারের উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরার পাশাপাশি চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরে বলেন-১০ কোটি টাকা ভ্যয়ে একটি আধুনিক কষাইখানার নির্মাণ হচ্ছে। গত একবছরে বিভিন্ন দপ্তর ঘুরে অভিজ্ঞতা অর্জনের পাশাপাশি ইতোমধ্যে বেশ কিছু বরাদ্দও পেয়েছি। আগামী চার বছরের মধ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভাকে একটি আধুনিক মডেল পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলব ইনশাআল্লাহ। এই রাস্তাটি নির্মাণ শেষ হলে চরাঞ্চলের মানুষের শহরে প্রবেশের পথ সুগম হবে। এই রাস্তা নির্মাণে আপনারা সহযোগিতা করবেন। কারো কোনো সমস্যা থাকলে আমাকে জানাবেন। কারো ক্ষতি করে কোনো কাজ পৌরসভা করবেনা।