চাঁপাইনবাবগঞ্জে ২টি সংসদীয় আসনে উপনির্বাচন : প্রচারণায় ব্যস্ত প্রার্থীরা

30

জাতীয় সংসদের ৪৪, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ (নাচোল-গোমস্তাপুর-ভোলাহাট) ও ৪৫, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ (সদর) শূন্য আসনে আগামী ১ ফেব্রুয়ারি সকাল সাড়ে ৮টা থেকে বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত ইভিএমের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ করা হবে। আসন দুটিতে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী রয়েছেন ৯জন। তার মধ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনে ৬ জন ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ (সদর) আসনে ৩জন।
নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি শুরু করেছে নির্বাচন অফিস। ইতোমধ্যে গত ১৯ ও ২০ জানুয়ারি ভোটগ্রহণ কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেছেন নির্বাচন কমিশনার রাশেদা সুলতানা। তিনি নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালনের আহ্বান জানিয়েছেন। নির্বাচন কমিশনার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের সঙ্গেও মতবিনিময় করে নির্বাচনী আচরণবিধি মেনে প্রচারণা চালানো এবং নিরপেক্ষ ভোটের কথা বলেছেন। ভোটারদের নির্বিঘেœ ভোট কেন্দ্রে গিয়ে উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটাধিকার প্রয়োগের আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।
জেলা নির্বাচন অফিসার মোতাওয়াক্কিল রহমান জানিয়েছেন, ভোটগ্রহণ কর্মকর্তাদের নিয়োগ সম্পন্ন করা হয়েছে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনে প্রিজাইডিং অফিসার ১৮০ জন এবং ১ হাজার ২৩০ জন সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার ও ২ হাজার ৪৬০ জন পোলিং অফিসার ভোটগ্রহণের দায়িত্ব পালন করবেন। তাদের প্রশিক্ষণ শুরু হয়েছে।
অপরদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনে ১৭২ জন প্রিজাইডিং, ১ হাজার ২৪০ জন সহকারী প্রিজাইডিং ও ২ হাজার ৪৮০ জন পোলিং অফসার ভোটগ্রহণের দায়িত্ব পালন করবেন।
অন্যদিকে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরাও নিজ নিজ অবস্থান থেকে নির্বাচনী প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। চায়ের দোকানে আড্ডাখানায় নির্বাচন নিয়ে আলোচনার কমতি নেই। দুপুর ২টার পর চলছে মাইকিং। প্রার্থীদের পোস্টারগুলো পথচারীদের নজর কাড়ছে।
এদিকে সরকারদলীয় প্রার্থী জিয়াউর রহমান ও আব্দুল ওদুদের জয় নিশ্চিত করার লক্ষে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেনসহ কেন্দ্রীয় নেতারাও ছুটে আসছেন। তারা দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময়ের পাশাপাশি জনসমাবেশেও বক্তব্য দিচ্ছেন, চায়ছেন নৌকার প্রার্থীদের জন্য ভোট। নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিয়েছেন বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহিও। তারা সরকারের উন্নয়ন কর্মকা- তুলে ধরছেন জনসাধারণের সামনে। তারা বলছেন, নৌকার প্রার্থীরা নির্বাচিত হলে আগামী একবছরে এলাকার ব্যাপক উন্নয়ন করবেন।
স্বল্প সময়ের এই উপনির্বাচনে জাতীয় সংসদের ৪৪, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ (নাচোল-গোমস্তাপুর-ভোলাহাট) আসনে ৬ জন প্রার্থী ভোট যুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছেন। তাদের মধ্যে রয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মু. জিয়াউর রহমান (নৌকা), আওয়ামী লীগ নেতা স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ আলী সরকার (আপেল), আওয়ামী লীগ নেতা স্বতন্ত্র প্রার্থী খুরশিদ আলম বাচ্চু (মাথাল), জাতীয় পার্টি মনোনীত লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী মোহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাক, জাকের পার্টি মনোনীত প্রার্থী মো. গোলাম মোস্তফা (গোলাপ ফুল) ও বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট-বিএনএফ মনোনীত প্রার্থী মো. নবীউল ইসলাম (টেলিভিশন)।
অন্যদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ (সদর) আসনে প্রার্থী রয়েছেন ৩ জন। তারা হলেন, আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল ওদুদ, জেলা যুব লীগের সাবেক সভাপতি ব্যবসায়ী সামিউল হক লিটন ও বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট-বিএনএফ মনোনীত প্রার্থী কামরুজ্জামান খাঁন (টেলিভিশন)। সামিউল হক লিটন আপেল প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ভোটের লড়াইয়ে নেমেছেন। দিন যতই যাচ্ছে ভোটগ্রহণের তারিখও ঘনিয়ে আসছে। আর তাই প্রার্থীরা রাতের ঘুম হারাম করে ভোটারদের দ্বরোদ্বারে ছুটছেন। ভোটাররাও হিসাব নিকাশ করছেন কাকে ভোট দিবেন।