চাঁপাইনবাবগঞ্জে সমস্যা নিয়ে গড়ে ওঠা আন্দোলন বিফলে যায়নি : মতবিনিময়কালে বক্তাদের অভিমত

21

অতীতে চাঁপাইনবাবগঞ্জবাসীর বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে গড়ে ওঠা আন্দোলন কখনই বিফলে যায়নি। অতীতে পদ্মা নদীর ভয়াবহ ভাঙন রোধে জেলাবাসীর আন্দোলনের ফসল বামতীর সংরক্ষণ প্রকল্প বাস্তবায়ন, আন্দোলন করে নবাবগঞ্জকে ‘চাঁপাইনবাবগঞ্জ’ করা, আন্দোলনের ফসল আন্তঃনগর ট্রেন চালু, ফজলি আমকে জিআই পণ্য হিসেবে গ্রহণ (যৌথভাবে), আন্দোলনের ফসল চাঁপাইনবাবগঞ্জে সাবেক রাষ্ট্রপতি হোসেন মোহাম্মদ এরশাদের আমলে ফিল্ড ফায়ারিং রেঞ্জ স্থাপনের সিদ্ধান্ত বাতিল করা হয়। অতীতে জেলাবাসীর সমস্যা নিয়ে গড়ে ওঠা সকল আন্দোলন সফল হয়েছে।
শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ সাধারণ পাঠাগারে জেলা জাসদ আয়োজিত ‘পাঁচ দফা দাবি বাস্তবায়নে করণীয়’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় বক্তারা জেলাবাসীর সমস্যা নিয়ে অতীতের সকল আন্দোলনের কথা এভাবেই তুলে ধরেন।
জাসদের দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছেÑ ১. চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা সদরে মেডিকেল কলেজ, ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেলা হাসপাতালে প্রয়োজনীয় জনবল নিয়োগ, সুপেয় পানি সরবরাহ, চিকিৎসা সেবার মান নিশ্চিত করা, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, কমিউনিটি ক্লিনিক, মাতৃসদনে অনিয়ম-অবহেলা বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ; ২. চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে চলাচলকারী করোনার ভয়াবহতার সময় বন্ধকৃত সকল ট্রেন চালু ও বনলতা ট্রেনের আসন সংখ্যা বৃদ্ধি; ৩. চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় পূর্ণাঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন; ৪. অবকাঠামো নির্মাণ ও ইমিগ্রেশন ব্যবস্থার আধুনিকায়নসহ সোনামসজিদ বন্দরকে পূর্ণাঙ্গ স্থলবন্দরে রূপান্তর করা এবং ৫. চাঁপাইনবাবগঞ্জে আন্তঃদেশীয় অর্থনৈতিক সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে বিশেষ অর্থনৈতিক জোন হিসেবে গড়ে তোলা।
জেলা জাসদের সভাপতি মোজাফ্ফর হোসেনের সভাপতিত্বে ও জেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনিরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় বক্তব্য দেনÑ শিক্ষক শাহ আলম, শাহ নেয়ামতুল্লাহ কলেজের গভর্নিং বডির সভাপতি মো. সাইদুর রহমান, পদ্মা নদীর ভাঙন প্রতিরোধ কমিটির আহ্বায়ক শফিকুল আলম ভোতা, শিক্ষক আব্দুল হান্নান, নাগরিক কমিটির উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট এবিএম সাইদুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট আবু হাসিব, শিক্ষক নেতা আজিজ আহমেদ, ব্যবসায়ী নেতা মো. শামসুল হক ও মো. তৌহিদুর রহমান, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান মুকুল, নাগরিক কমিটির নেতা রেজাউন নবী তপুসহ বিশিষ্টজনরা।
বক্তারা দাবিগুলোর সঙ্গে সহমত পোষণ করে একাত্মতা ঘোষণা করেন এবং এইসব দাবি বাস্তবায়নে বৃহৎ পরিসরে আন্দোলন গড়ে তোলার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।