চাঁপাইনবাবগঞ্জে শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উপলক্ষে আলোচনা

18

চাঁপাইনবাবগঞ্জে পরেমশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টামী উদ্যাপন উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন জেলা প্রশাসক এ কে এম গালিভ খাঁন। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক দেবেন্দ্র নাথ উরাঁওয়ের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আলোচনায় অংশ নেনÑ নবাবগঞ্জ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. শংকর কুমার কু-ু, জন্মাষ্টমী উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক কনক রঞ্জন দাস ও সাধারণ সম্পাদক শ্রীল শ্যামকিশোর দাস গোস্বামী মহারাজ, বাংলাদেশ পূজা উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি ডাবলু কুমার ঘোষ ও সাধারণ সম্পাদক ধনঞ্জয় চ্যাটার্জি, বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ রায়, শ্রী ভব সুন্দর পাল, গৌরি চন্দ সিতু।
হিন্দু নেতারা সকলকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানিয়ে বলেনÑ যে কোনো ধর্ম নিয়ে বা যে কোনো বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে কোনো ধরনের পোস্ট দেয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনেক করেছেন। আগামীতে আমাদের ঐকব্যদ্ধ থাকতে হবে।
ডাবলু কুমার ঘোষ সভায় নাচোল উপজেলায় সরকারিভাবে কাগজপত্র থাকলেও সংখ্যালঘুদের ভূমি বেহাত হওয়া এবং ভোলাহাট উপজেলায় শ্মশান না থাকার বিষয় দুটি জেলা প্রশাসকের গোচরে আনলে জেলা প্রশাসক এ কে এম গালিভ খাঁন উদ্যোগ গ্রহণ করেন। ভোলাহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সঙ্গে তাৎক্ষণিক যোগাযোগ করে সভাকে জানান, সুবিধামত জায়গায় খাস জমি পাওয়া গেলেই শ্মশানের জন্য বরাদ্দ দেয়া হবে। জেলা প্রশাসক বলেনÑ প্রশাসন আপনাদের পাশে আছে। কাজেই কেউ কোনো ধরনের গুজবে কান দেবেন না।
হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা এই কর্মসূচির আয়োজন করে। সভায় বিজ্ঞজনরা ভগবান শ্রী কৃষ্ণের জন্মের কারণসহ নানা দিক নিয়ে আলোচনা করেন।
পরে তেরটি মন্দিরকে ১ লাখ ৪১ হাজার টাকার চেক প্রদান করা হয়।
এদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলাশহরের শাহনেয়ামতুল্লাহ কলেজ সনাতন শিক্ষার্থী পরিষদ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে আলোচনা ও প্রার্থনা সভার আয়োজন করে।
বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় কলেজ ভবনে সনাতন ছাত্র পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুব্রত কুমার সরকারের সভাপতিত্বে আলোচনা ও প্রার্থনা সভায় প্রধান আলোচক ছিলেন, রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার প্রেমতলী ইসকন খেতুরিধামের সংকীর্তন রামদাস। এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেনÑ সদর উপজেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি স্বপন কুমার দাস, শিক্ষিকা শুক্লা পালসহ সনাতন ছাত্র পরিষদের কলেজ শাখার সদস্যরা।