চাঁপাইনবাবগঞ্জে শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় মহান বিজয় দিবস উদযাপন

14

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের মধ্যদিয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জে মহান বিজয় দিবস উদযাপন করা হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে জেলা ও উপজেলা প্রশাসন, জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করে।
গত শুক্রবার সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে জেলাশহরের পুরাতন স্টেডিয়ামে ৩১ বার তোপধ্বনির ম্যধদিয়ে শুরু হয় জেলা প্রশাসন আয়োজিত বিভিন্ন কর্মসূচি। সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের নাম-সংবলিত স্মৃতিফলকে এবং পরে আব্দুল মান্নান সেন্টু মার্কেটের সামনে মুক্তমঞ্চে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করা হয়।
জেলা প্রশাসক এ কে এম গালিভ খাঁনের নেতৃত্বে জেলা প্রশাসন, পুলিশ সুপার এএইচএম আবদুর রকিবের নেতৃত্বে জেলা পুলিশ, বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ রুহুল আমিনের নেতৃত্বে মুক্তিযোদ্ধাগণ, মেয়র মোখলেসুর রহমানের নেতৃত্বে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভা, সিভিল সার্জন ডা. এসএম মাহমুদুর রশিদের নেতৃত্বে সিভিল সার্জন অফিস, আওয়ামী লীগ এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন, সকল সরকারি দপ্তর, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ সর্বস্তরের মানুষ ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।
শ্রদ্ধা নিবেদন করেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক এমপি আব্দুল ওদুদসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ, সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য ফেরদৌসী ইসলাম জেসি, বিএমএ নেতা ডা. দুররুল হোদা ও স্বাচিপ নেতা ডা. গোলাম রাব্বানীসহ অন্যরা।
সকাল সাড়ে ৮টায় ডা. আ.আ. ম. মেসবাহুল হক (বাচ্চু ডাক্তার) স্টেডিয়ামে জেলা প্রশাসক এ কে এম গালিভ খাঁন আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন এবং বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে দিনের কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। এসময় তিনি জেলাবাসীর উদ্দেশ্যে বাণী প্রদান করেন।
পরে পুলিশ, আনসার, জেল পুলিশ, বিএনসিসি, বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের স্কাউটস, রোভার স্কাউটস দল কুচকাওয়াজ প্রদর্শন করে। এ-সময় পুলিশ সুপার এএইচএম আবদুর রকিব উপস্থিত ছিলেন। পরে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ডিসপ্লে প্রদর্শন করেন।
বেলা ১১টায় জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তযোদ্ধাদের পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা দেয়া হয়।
বিকাল ৩টায় বাচ্চু ডাক্তার স্টেডিয়ামে জেলা প্রশাসন ও জেলা পরিষদের মধ্যে এক প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রশাসক উপস্থিত থেকে উভয়পক্ষের খেলোয়াড় ও সংশ্লিষ্টদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন।
বিকাল সাড়ে ৫টায় বঙ্গবন্ধু মঞ্চে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। জেলা প্রশাসকের সভাপতিত্বে সেখানে উপস্থিত ছিলেনÑ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ, বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকম-লী, শিক্ষার্থীবৃন্দ, স্কাউটসের সদস্যবৃন্দ, এনজিও প্রতিনিধি, গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও সাংবাদিকবৃন্দ।
পরে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এছাড়াও অন্যান্য কর্মসূচি পালন করা হয়।
ইবিএইউবি : এক্সিম ব্যাংক কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ (ইবিএইউবি) যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস-২০২২ উদ্যাপন করেছে। শহীদদের স্মৃতির প্রতি এবং বঙ্গবন্ধু প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ, আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব মিলনায়তনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন উপাচার্য প্রফেসর ড. এ বি এম রাশেদুল হাসান। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল শিক্ষার্থী, নবীন ও প্রবীণ শিক্ষকসহ সকলকে বিজয় দিবসের সঠিক ইতিহাস জানাসহ বুকে ধারণ ও লালন করে, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হবার জন্য আহ্বান জানান।
অনুষ্ঠনে বিশেষ অতিথি ছিলেন ভারপ্রাপ্ত ট্রেজারার এবং কৃষি, কৃষি অর্থনীতি ও গ্রামীণ উন্নয়ন অনুষদের ডিন ড. দেলোয়ার হোসেন। সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. মনিরুল ইসলাম রিন্টু।
অনুষ্ঠানে অন্য শিক্ষকগণ উপস্থিত ছিলেন।
পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট : মহান বিজয় দিবসে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার সকালে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটির সম্মেলন কক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
“জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ ও ডিজিটাল প্রযুক্তির সর্বোত্তম ব্যবহার” শীর্ষক এ আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত ওয়ারেন্ট অফিসার বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহা. আল মোস্তান। তিনি বলেন, বাংলাদেশ বিনির্মাণে আমাদের ত্যাগের ইতিহাস সম্পর্কে ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে জানাতে হবে। দেশকে উচ্চস্থানে নিয়ে যেতে দেশের মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান দিতে হবে। সেই সঙ্গে দেশের কাঠামো শক্তভাবে গড়ে তুলতে হলে ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে ইতিহাস জানতে হবে।
আলোচনা করেন চিফ ইনস্ট্রাক্টর (নন-টেক) দুর্গা চরণ রায় ও চিফ ইনস্ট্রাক্টর (ইলেকট্রিক্যাল) আফিদা রহমান। সভাপতিত্ব করেন অধ্যক্ষ প্রকৌশলী এজেএম মাসুদুর রহমান। এসময় শিক্ষকগণ উপস্থিত ছিলেন।
শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর : যথাযোগ্য মর্যাদায় র‌্যালি ও শহীদদের শ্রদ্ধা নিবেদনের মধ্যদিয়ে মহান বিজয় দিবস উদ্যাপন করেছে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা কার্যালয়।
সকালে নির্বাহী প্রকৌশলী মো. রাকিবুল আহসানের নেতৃত্বে জেলা শহরের কাঁঠালবাগিচা সড়কের জেলা কার্যালয় থেকে র‌্যালিটি বের করা হয়। পরে আব্দুল মান্নান সেন্টু মার্কেটের সামনে মুক্তমঞ্চে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এছাড়া জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বরে শহীদদের নাম-সংবলিত স্মৃতিফলকে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।
কর্মসূচিতে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা কার্যালয়ের অন্য কর্মকর্তা-কর্মচারীরা অংশগ্রহণ করেন।
আলোর পাঠশালা : বাবুডাইং আলোর পাঠশালায় মহান বিজয় দিবস উদ্যাপন করা হয়েছে। কুচকাওয়াজ ও মনোরম ডিসপ্লে প্রদর্শন করে বিদ্যালয়ের কাব ও স্কাউট দল। প্রাক-প্রাথমিক থেকে ১০ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের নিয়ে প্রায় ২০টি ক্যাটাগরিতে খেলাধুলা অনুষ্ঠিত হয়। এতে গ্রামবাসী ও অভিভাবকরাও অংশ নেন।
খেলাধুলার মধ্যে ছিল ঐতিহ্যবাহী তীর নিক্ষেপ, হাঁড়ি ভাঙ্গা, মেয়েদের রশি টানাটানি, বস্তা দৌড়, মোরগ লড়াই, দড়ি খেলা, যেমন খুশি তেমন সাজো।
শেষে সাংস্কৃতিক পরিবেশনা ও পুরস্কার বিতরণের আয়োজন করা হয়।
শিবগঞ্জ প্রতিনিধি : চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে যথাযোগ্য মর্যাদায় বিজয় দিবস উদ্যাপিত হয়েছে। শুক্রবার সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, শহীদ বেদীতে পুষ্পস্তবক অর্পণ, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ, বীর মুক্তিযোদ্ধা, শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারদের সংধর্বনার মধ্যদিয়ে দিবসটি উদ্যাপিত হয়।
উপজেলা পরিষদ চত্বরে অস্থায়ী শহিদ বেদীতে প্রথমে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন সংসদ সদস্য ডা. সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল। এরপর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল হায়াত, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডের সাবেক কমান্ডার বজলার রশিদ সনু, শিবগঞ্জ থানার ওসি চৌধুরী জোবায়ের আহাম্মদ, শিবগঞ্জ পৌর মেয়র সৈয়দ মনিরুল ইসলামসহ অন্যরা শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।
পরে উপজেলা পরিষদ চত্বরে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারদের সংবর্ধনা দেয়া হয়। একই স্থানে আয়োজন করা হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের।
গোমস্তাপুর প্রতিনিধি : চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে মহান বিজয় দিবস উদ্যাপিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসন, স্থানীয় আওয়ামী লীগ, বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন নানা কর্মসূচি পালন করে।
উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পঅর্পণ, বীর মুক্তিযোদ্ধা, যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।
উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত বিভিন্ন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেনÑ চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য মু. জিয়াউর রহমান, গোমস্তাপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হুমায়ুন রেজা, উপজেলা নির্বাহী অফিসার আসমা খাতুন, গোমস্তাপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সামছুল আজম, রহনপুর পৌর মেয়র মতিউর রহমান খাঁনসহ অন্যরা।
এদিকে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসগঠনের নেতাকর্মীরা সকালে উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন ও বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে মাল্যদান করেন।
উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে ৩৫০ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার মধ্যে একটি করে কম্বল ও চাদর বিতরণ করা হয়। এসময় উপজেলা প্রশাসনের পক্ষে সমাজসেবা কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।
অন্যদিকে গোমস্তাপুর প্রভাতী সংঘের আয়োজন ক্রীড়া প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। দিনব্যাপী গোমস্তাপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বিভিন্ন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। বিকেলে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন প্রভাতী সংঘের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ মিঠু। তোফাজ্জুল হক আজমের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন কৃষি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব কমলা রঞ্জন দাস।
নাচোল প্রতিনিধি : জেলার নাচোলে মহান বিজয় দিবস উদ্যাপিত হয়েছে। শুক্রবার নাচোল সরকারি কলেজ প্রাঙ্গণে শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। উপজেলা প্রশাসন, নাচোল উপজেলা আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপ, উপজেলা ও পৌর ছাত্রলীগ, পৌর যুবলীগ, মহিলা দলের সভানেত্রী, নাচোল উপজেলা বিএনপি, বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি, উপজেলা স্বাস্থ্য প্রশাসন, আনসার, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স, ক্ষুদ্র ও নৃতাত্ত্বিক গোষ্ঠী, হরিজন সম্প্রদায়ের পক্ষ থেকে শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে।
এসময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাইমেনা শারমীনসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।
সকাল সাড়ে ১০টায় শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবার, যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা ও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা প্রদান ও বিকেল ৩টায় সকলের অংশগ্রহণে প্রীতি ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। পরে বিভিন্ন ইভেন্টে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।
এসময় উপস্থিত ছিলেনÑ নাচোল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাইমেনা শারমীন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের, নাচোল পৌরসভার মেয়র আব্দুর রশিদ খান ঝালুসহ অন্যরা।