চাঁপাইনবাবগঞ্জে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের গৃহ নির্মাণ কাজ এগিয়ে চলেছে

16

চাঁপাইনবাবগঞ্জে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে অসহায় ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জন্য গৃহ নির্মাণ কাজ এগিয়ে চলেছে। সরকারের আশ্রয়ণ প্রকল্প-২’র আওতায় তৃতীয় পর্যায়ে এসব গৃহ নির্মাণ করা হচ্ছে।
নির্মাণ কাজের মান যেন ঠিক থাকে সেজন্য চাঁপাইনবাবগঞ্জের নবাগত জেলা প্রশাসক এ কে এম গালিভ খান প্রতিটি উপজেলায় নির্মাণাধীন গৃহগুলো পরিদর্শন করছেন এবং কাজের মান পর্যবেক্ষণ করছেন। এরই ধারাবাহিকতায় শনিবার তিনি জেলার সদর উপজেলার বাবুডাইং এলাকায় নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করেন। এসময় তিনি কাজের মান বজায় রেখে নির্ধারিত সময়ে নির্মাণ কাজ শেষ করতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ প্রদান করেন।
জেলা প্রশাসক এ কে এম গালিভ খান সাংবাদিকদের বলেন- কাজের মান ঠিক রেখে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহারের এই ঘরগুলো অসহায় দুখি মানুষের হাতে তুলে দেয়ার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করছি। সারাদেশেই আমাদের উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণ কোয়ালিটি ঠিক রেখে কাজ করে যাচ্ছেন। তারই ধারাবাহিকতায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলায় তৃতীয় পর্যায়ে ৩০টি গৃহ নির্মাণ করা হচ্ছে। এছাড়া ইতোপূর্বে ৬৩৮টি গৃহ নির্মাণ করে উপকারভোগীদের মাঝে হস্তান্তর করা হয়েছে।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্ধৃতি দিয়ে জেলা প্রশাসক বলেন- এটি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আবেগ, দেশে কোনো মানুষই গৃহহীন থাকবে না। এই কাজটি আমরা অত্যন্ত নিষ্ঠার সঙ্গে করার চেষ্টা করছি। এসময় তিনি ওই এলাকায় প্রায় ১ কিলোমিটার কাঁচা রাস্তা পাকা করার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে নির্দেশ প্রদান করেন।
এসময় সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান তসিকুল ইসলাম তসি, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইফফাত জাহান, উপজেলা প্রকৌশলী মনিরুজ্জামান, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মৌদুদ আলম খাঁ উপস্থিত ছিলেন।
এছাড়াও শনিবার সকল অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি)গণ অন্যান্য উপজেলায় নির্মাণাধীন গৃহ পরিদর্শন করেন। এ সময় প্রকল্পের নির্ধারিত ডিজাইন ও প্রাক্কলন অনুযায়ী ঘর নির্মিত হচ্ছে কিনা সেটা যাচাই করা হয়।
পরিদর্শনকালে জেলা প্রশাসক ও অন্যান্য কর্মকর্তা বিভিন্ন উপজেলার প্রথম ও দ্বিতীয় পর্যায়ের উপকারভোগীদের সঙ্গেও কথা বলেন। এসময় তারা উপকারভোগীদের আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নয়নের জন্য আয়বর্ধক কর্মকা-ে অংশগ্রহণ করতে উদ্বুদ্ধকরণসহ বিভিন্ন বিষয়ে তাদের খোঁজখবর নেন।