চরবাগডাঙ্গায় রেডিও মহানন্দার সামাজিক সংলাপ

19

চাঁপাইনবাবগঞ্জে প্রজনন স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা পদ্ধতি বিষয়ক সামাজিক সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার সকালে সদর উপজেলার চরবাগডাঙ্গা ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে এ সংলাপের আয়োজন করে চাঁপাইনবাবগঞ্জের একমাত্র কমিউনিটি রেডিও, রেডিও মহানন্দা ৯৮.৮ এফএম। ইউকেএইডের অর্থায়নে, আইপাস বাংলাদেশ এবং বিএনএনআরসির সহযোগিতায় এ সামাজিক সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়।
প্রজনন স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা পদ্ধতি বিষয়ক সামাজিক সংলাপ অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন আইপাস বাংলাদেশর বিভাগীয় সমন্বয়কারী আসলাম সিদ্দীকি, বিএনএনআরসির প্রকল্প সমন্বয়কারী বিমল কান্তি কুরী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদ কমিউনিটির উপসহকারী মেডিকেল অফিসার আনোয়ারুল আজিম, রেডিও মহানন্দার স্টেশন ম্যানেজার আলেয়া ফেরদৌস, চরবাগডাঙ্গা ১২নং ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত ওয়ার্ডের মহিলা সদস্য শাহিন আক্তার বিউটি।
সামাজিক সংলাপে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদ কমিউনিটির উপসহকারী মেডিকেল অফিসার আনোয়ারুল আজিম তার বক্তব্যে বলেন, ইমপ্ল্যান্ট শুধুমাত্র প্রজেস্টোরেন হরমোন সমৃদ্ধ অস্থায়ী দীর্ঘমেয়াদি জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি, যা মহিলাদের বাহুতে চামড়ার নিচে স্থাপন করা হয়। ৩-৫ বছর মেয়াদি এই পদ্ধতির কার্যকারিতার সময় নির্ভর করে এর রডের সংখ্যা এবং হরমোনের ধরনের ওপর। ইমপ্ল্যান্ট প্লাস্টিক বা সিলিকন রাবারের তৈরি এক বা একাধিক ক্যাপসুল বিশিষ্ট ডিভাইস, যার ভিতরে কৃত্রিম প্রজেস্টোরেন হরমোন থাকে। চামড়ার নিচে স্থাপনের পরপর ক্যাপসুলের গায়ের অসংখ্য অনুবীক্ষণিক ছিদ্র দিয়ে নির্দিষ্ট মাত্রায় হরমোন নিঃসৃত হতে থাকে। ইমপ্ল্যান্ট কাদের জন্য উপযোগী এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন নবদম্পতি, যারা দীর্ঘদিনের জন্য জন্মবিরতি চান, যারা বাচ্চাকে বুকের দুধ খাওয়ান, যারা ইস্ট্রোজেন সমৃদ্ধ পদ্ধতি ব্যবহার করতে পারেন না।
এছাড়াও ইমপ্ল্যান্টের সুবিধা বিষয়ে আনোয়ারুল আজিম বলেন, ইমপ্লান্ট নেয়ার পরে খুলে ফেলার সাথে সাথেই গর্ভধারণ ক্ষমতা ফিরে আসে। নবদম্পতিরাও ব্যবহার করতে পারেন। ইমপ্লান্ট যৌনইচ্ছা বা যৌনমিলনে বাধার সৃষ্টি করে না। প্রসব-পরবর্তী মা, যারা সন্তানকে বুকের দুধ পান করাচ্ছেন তারা সন্তানের বয়স ৬ সপ্তাহ হওয়ার পর থেকেই এটি ব্যবহার করতে পারেন। যারা ইস্ট্রোজেন সমৃদ্ধ পদ্ধতি ব্যবহার করতে পারেন না তাদের জন্য এটা একটি উপযুক্ত পদ্ধতি।
সংলাপে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চরবাগডাঙ্গা ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনার পরিদর্শক রহিমা বেগম, ফার্মাসিস্ট আব্দুল মোমিন, রেডিও মহনন্দার টেকনিক্যাল অফিসার রেজাউল করিম, সহকারী টেকনিক্যাল অফিসার শাহরিয়ার হোসেন শিমুল, সহকারী অনুষ্ঠান প্রযোজক মৌটুসিসহ অন্যরা।
সামাজিক সংলাপে দীর্ঘমেয়াদি পদ্ধতি ইমপ্ল্যান্ট, আইইউডি, মাসিক নিয়মিতকরণ, প্রসব ও গর্ভপাত-পরবর্তী পরিবার পরিকল্পনা সেবা, নবদম্পতি ও কিশোর-কিশোরীদের প্রজনন স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনার পদ্ধতি বিষয়ে অংশগ্রহণকারীদের সচেতনতামূলক পরামর্শ প্রদান করা হয়।