গুজরাটে মদপানে ২১ জনের মৃত্যু

2

ভারতের গুজরাটে বিষাক্ত মদপানে অন্তত ২১ জন মারা গেছে। এ ঘটনায় গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছেন আরও ২০ জন। খবর এনডিটিভি। সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, বিষাক্ত মদপানে মৃতদের অধিকাংশই শ্রমিক বা দিনমজুর। এ ছাড়া ‘ড্রাই স্টেট’ (মদ বিক্রি নিষিদ্ধ) বলে ঘোষিত গুজরাট রাজ্যে বিষাক্ত মদ্যপানে মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত শুরু হয়েছে। প্রতিবেদন থেকে আরও জানা যায়, বিষাক্ত মদপানের কারণে গত সোমবার গুজরাটে কমপক্ষে ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়া বোটাদ, ভাবনগর এবং আহমেদাবাদ হাসপাতালে ২০ জনেরও বেশি মানুষ চিকিৎসাধীন রয়েছেন। অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। মদ খাওয়ার কাহিনীটি ঘটে গুজরাটের আহমেদাবাদ ও বোটাদ জেলার বেশ কয়েকটি গ্রামে। এসব এলাকার বেশ কয়েকজনকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতরা গ্রামে নকল মদ বিক্রির সঙ্গে জড়িত বলে জানা গেছে।ইতোমধ্যে এই ঘটনায় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে গুজরাট সরকার। রাজ্যটির একজন ডেপুটি সুপারিনটেনডেন্ট অব পুলিশ-এর নেতৃত্বে একটি বিশেষ তদন্ত দল (এসআইটি) গঠন করা হয়েছে। রাজ্যটির প্রবীণ কংগ্রেস বিধায়ক অমিত চাভদা বলেছেন, অপরাধী ও পুলিশের যোগসাজশে এবং রাজ্যে বিজেপি নেতাদের পৃষ্ঠপোষকতায় এখানে ব্যাপক বুটলেগিং (মদের অবৈধ উৎপাদন, বিতরণ বা বিক্রয়) চলছে।তিনি আরও বলেন, মদের অবৈধ উৎপাদন, বিতরণ বা বিক্রয়ের সঙ্গে জড়িতদের কাছ থেকে নিয়মিত মাসিক ঘুষ নেয় পুলিশ। গুজরাটে দুইদিনের সফরে রয়েছেন আম আদমি পার্টির প্রধান এবং দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। তিনি বলেন, রাজ্যে (মাদক) নিষেধাজ্ঞা কেবল কাগজে-কলমে।