গণশপথের মধ্য দিয়ে আন্দোলন স্থগিত করবেন বুয়েট শিক্ষার্থীরা

7

বুধবার গণশপথের মধ্য দিয়ে আন্দোলন স্থগিতের ঘোষণা দিয়েছেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। তবে তারা বলছেন, চার্জশিট হওয়ার পর অভিযুক্তদের স্থায়ী বহিষ্কার না করা পর্যন্ত কোনো একাডেমিক কার্যক্রমে অংশ নেবেন না তারা। মঙ্গলবার দিনব্যাপী সভা শেষে বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে বুয়েট শহীদ মিনারে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা এই ঘোষণা দেন।
আন্দোলনকারীদের পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বুয়েট শিক্ষার্থী মাহমুদুর রহমান সায়েম। এসময় তারা বলেন, বুধবার শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের নিয়ে গণশপথের মধ্য দিয়ে ক্যাম্পাসে সন্ত্রাস ও সাম্প্রদায়িক শক্তিকে রুখে দিতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হবেন তারা। তবে মাঠপর্যায়ের আন্দোলন স্থগিত করলেও তাদের দাবিসমূহ সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণে রাখার কথা বলেছেন তারা। একইসঙ্গে চার্জশিটে অভিযুক্ত সকলকে যতদিন পর্যন্ত স্থায়ীভাবে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার না করা হয় ততদিন ক্লাস পরীক্ষাসহ যে কোনো ধরনের একাডেমিক কার্যক্রমে অংশ না নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা।
এ সময় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মুখপাত্র বলেন, আবরারের লাশকে পর্দা হিসেবে ব্যবহার করে অনেক সংগঠন নিজেদের স্বার্থ হাসিলের চেষ্টা করেছে। তারা এর মাধ্যমে ব্যক্তিগত এজেন্ডা বাস্তবায়ন ও আন্দোলনকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা করছে। আমরা সুস্পষ্টভাবে বলে দিতে চাই, এদের সঙ্গে আমাদের কোনও সংশ্লিষ্টতা নেই। এসব সংগঠনের কথায় কাউকে বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান জানান তারা। এ সময় আবরার হত্যার বিচারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশেষ নজর রাখায় কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন আন্দোলনকারীরা। খবর এফএনএস।