খেলতে নাও পারেন মিসবাহ-ইউনিস

105

03-

দলের সবচেয়ে অভিজ্ঞসমৃদ্ধ খেলোয়াড় সাবেক পাকিস্তান অধিনায়ক ইউনিস খান এবং বর্তমান টেস্ট অধিনায়ক মিসবাহ-উল-হক। ক্যারিয়ার সায়াহ্নে এসে তারা যেরকম পারফর্ম করে যাচ্ছেন, এককথায় অবিশ্বাস্য। মিসবাহ কিছুদিন আগে বিপিএলে রংপুর রাইডার্সের হয়ে খেলে গেছেন। অবশ্য খুব বেশি ম্যাচ খেলার সুযাগ হয়নি বর্ষীয়ান এই ক্রিকেটারের। কিন্তু পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) বোর্ডের তরফ থেকে একটু বেশি মর্যাদা পাবেন এটা মিসবাহ যেমন একইভাবে ইউনিসও আশা করতেই পারেন।
বুধবার পিএসএলের পাঁচ আইকন খেলোয়াড় বাঁছাই করা হয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, বিদেশি ক্রিস গেইল, কেভিন পিটারসেন, শেন ওয়াটসনরা আছেন। কিন্তু মিসবাহ-ইউনিসের নাম নেই। তারা কষ্ট পাচ্ছেন এই ভেবে যে পিটারসেন বহুদিন আগেই অবসর নিয়েছেন, তিনি যদি আইকন হতে পারেন তাহলে তাদের না হওয়ার কী কারণ?
আরও মজার ব্যাপার, পাকিস্তান ২০০৯ সালে একবারই টি২০ বিশ্বকাপ জিতেছিল। ওই দলের অধিনায়ক ছিলেন ইউনিসই। আর এখনও পাকিস্তান টেস্ট দলের ঝা-া মিসবাহর হাতে। তারওপর টুর্নামেন্টটি করছে পাকিস্তান বোর্ড (পিসিবি)। আইকন খেলোয়াড়ের তালিকা থেকে বাদ দেওয়ায় মিসবাহ-ইউনিসরা যে খুশি নন, সেটাও তাদের একটি বিশ্বস্ত সূত্র জানিয়েছে। সেই সূত্রটি জানায়, তারা খুশি হতে পারেননি। বিষয়টি নিয়ে তারা বোর্ডকে বলবেন যে, পিএসএল ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্টে তাদেরকে নেতৃত্ব দেওয়া না হলে তারা নাও খেলতে পারেন।’
ক্রিস গেইল, কেভিন পিটারসেন এবং শেন ওয়াটসনকে আইকন খেলোয়াড় হিসেবে বেঁছে নেওয়ায় মিসবাহ-ইউনিস দু’জনই হতাশ। কারণ পিটারসেন কোনো লিগেই আইকনের মর্যাদা পাননি। বহুদিন ধরে সে ইংল্যান্ড দলের বাইরে। অন্যদিকে, ওয়াটসন অবসর নিয়ে ফেলেছেন। মিসবাহ এবং ইউনিস এখনও টেস্ট চালিয়ে যাচ্ছেন।
কিছুদিন আগে ইউনিস সবার সামনে বলে দেন তিনি পিএসএলে কোনো দলকে নেতৃত্ব দিতে চান,‘ আমি পিএসএলে নেতৃত্বদানের পর্যায়ে থাকতে চাই। এটা অধিনায়ক কিংবা উপদেষ্টা হিসেবেও হতে পারে।’ মিসবাহ-ইউনিসের মতো পিসিবি উপেক্ষা করেছে সাবেক টি২০ অধিনায়ক মোহাম্মদ হাফিজকেও।
পিএসএলের প্রতিটি দল একজন করে আইকন খেলোয়াড় নিতে পারবে। তিন বিদেশির সঙ্গে বর্তমান টি২০ অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি এবং সাবেক অধিনায়ক শোয়েব মালিককে দেওয়া হয়েছে আইকন খেলোয়াড়ের মর্যাদা। পাকিস্তানের বহুল আলোচিত টুর্নামেন্টটি সংযুক্ত আরব আমিরাতে ৪ ফেব্রুয়ারি শুরু হয়ে শেষ হবে ২৩ ফেব্রুয়ারি ফাইনালের মধ্য দিয়ে।