ক্লান্তিহীনভাবে গান করে যাচ্ছেন সামিনা

72

03নিজের দীর্ঘ ক্যারিয়ারে অনেক জনপ্রিয় গান উপহার দিয়েছেন সামিনা চৌধুরী। প্লেব্যাকে তিনি যেমন ধারাবাহিকভাবে সফল তেমনি অডিওতেও তার গাওয়া অনেক গান শ্রোতাদের হৃদয়ে দাগ কেটে আছে। এতটা বছর পেরিয়ে এসেও ক্লান্তিহীনভাবে গান করে যাচ্ছেন তিনি। স্টেজ, অ্যালবাম ও প্লেব্যাকে আগের মতোই সরব এ শিল্পী। গান নিয়ে প্রতিদিনই ব্যস্ত সময় পার করছেন। সব মিলিয়ে এই সময়ে কেমন আছেন? সামিনা চৌধুরী বলেন, এইতো বেশ আছি। সবার দোয়ায় ভালোই চলে যাচ্ছে। গানের মাঝেই আছি। এদিকে গত বছর বেশ কয়েকটি দেশে প্রবাসীদের আমন্ত্রণে সংগীত পরিবেশন করেছেন সামিনা। পাশাপাশি ব্যস্ত থেকেছেন দেশের বিভিন্ন প্রোগ্রাম নিয়েও। সেই ধারাবাহিকতা রয়েছে নতুন বছরেও। দেশে নিয়মিত শো করছেন তিনি। তবে বড় শোগুলোতেই বেশি গান গেয়ে থাকেন সামিনা। এ বিষয়ে তিনি বলেন, দেশে এবং বিদেশে সব জায়গাতেই শো করতে ভালো লাগে। কারণ গান গেয়ে সরাসরি ভালোবাসা পাওয়াটা অনেক বড় একটি ব্যাপার। এটা সবার ভাগ্যে জোটে না। আর দেশের বাইরে শো করতে গেলে শ্রোতাদের মধ্যে আবেগটা একটু বেশি দেখতে পাই। নিজেও আবেগি হয়ে যাই। এখন যেহেতু শীত মৌসুম তাই দেশের বিভিন্ন স্থানে অনেক শো হচ্ছে। আমিও ভালো মানের শোগুলোতে নিয়মিত গাইছি। কদিন আগেই বিজয় দিবস উপলক্ষে নতুন দুটি দেশের গানে কণ্ঠ দিয়েছেন সামিনা চৌধুরী। এর মধ্যে একটি গানের নাম ‘অনেক দামে পাওয়া’। গানটির কথা লিখেছেন শফিক তুহিন ও সুর করেছেন মারশাল। এর বাইরে ‘চেনো আমাকে’ শীর্ষক একটি গানও ১৬ই ডিসেম্বর উপলক্ষে প্রকাশ করেছেন এ শিল্পী। এর সুর ও সংগীত করেছেন সুমন কল্যাণ। দুটি গানই এর মধ্যে প্রশংসিত হয়েছে শ্রোতামহলে। অন্যদিকে গেল বছর কুমার বিশ্বজিতের সঙ্গে সামিনা চৌধুরীর ‘আসমান হবে চাঁদর’ গানটিও ভালো শ্রোতাপ্রিয়তা পায়। ২০১৬ এর গানগুলো সম্পর্কে এ শিল্পী বলেন, অডিওতে খুব বেশি গান করিনি গত বছর। স্টেজেই বেশি ব্যস্ত ছিলাম। বেছে বেছে নতুন গানগুলোর কাজ করেছি। আর সে গানগুলো শ্রোতারা পছন্দ করেছেন। এটাই আসলে বড় ব্যাপার। নতুন বছরের কি খবর? নতুন অ্যালবাম কি আসবে? উত্তরে সামিনা চৌধুরী বলেন, ‘পুষ্পবৃষ্টি’ নামে আমার পরবর্তী একক অ্যালবামের কাজ অনেকখানি গুছিয়ে এনেছি। খুব শিগগিরই এটি প্রকাশের ইচ্ছে আছে। বিভিন্ন ধরনের গান দিয়ে সাজিয়েছি এ অ্যালবাম। আশা করছি ভালো লাগবে সবার। তবে এটি প্রকাশের তারিখ সম্পর্কে এখনই বলতে পারছি না। এছাড়াও নতুন আরও কিছু গানের কাজ করেছি। সেগুলোও এ বছর প্রকাশের কথা রয়েছে। চলতি সময়ের গান কেমন লাগে? সামিনা চৌধুরী বলেন, এখন অনেকে অনেক ভালো কাজ করছে। তবে ভালোর পাশাপাশি খারাপ গানও হচ্ছে। একটি বিষয় লক্ষ্য করলে দেখা যাবে, এখন গায়ক-গায়িকার অভাব নেই। মনে হয় সবাই গান গাইছে। তবে এখন প্রকৃত শিল্পী হওয়ার চেষ্টা খুব কম দেখি। তারকা হওয়ার প্রবণতাটাই বেশি। গান ভালোবাসা থেকে করতে হবে। না হলে হবে না। এ বিষয়ে সামিনা চৌধুরী আরও বলেন, আমি বিশ্বাস করি এখন অনেক মেধাবী শিল্পী, গীতিকার ও সংগীত পরিচালক রয়েছেন। অনেকের গানই আমার ভালো লাগে। তবে একটি বিষয় মনে রাখতে হবে। গান মানুষের মনের খোরাক। সেটা মন দিয়েই করতে হবে। শেখার ও জানার চেষ্টা থাকতে হবে। কারণ জানার কোন শেষ নেই। শুধু বাণিজ্যকে প্রাধান্য দিলে গান হবে না। সবচেয়ে জরুরি হলো ভালো একজন মানুষ হওয়া। ভালো মানুষ না হলে ভালো শিল্পী হওয়া যায় না। আর কোনো সময় হতাশ হলে চলবে না। ধৈর্য ধরতে হবে। সময় দিতে হবে। এক লাফেই সফলতা আসবে না। এলেও সেটা দীর্ঘদিন থাকবে না।