কোন দলকেই ছোট করে দেখছেন না মাহমুদউল্লাহ

9

আগামী ১৭ অক্টোবর স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ মিশন। কুড়ি ওভারের বিশ্বকাপে মূল পর্বে খেলতে হলে প্রাথমিক পর্ব টপকে আসতে হবে। প্রথম রাউন্ডে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ স্কটল্যান্ড, পাপুয়া নিউগিনি ও ওমানের মতো দল। তবে ফরম্যাট ২০ ওভারের বলে কোন দলকেই ছোট করে দেখছেন না মাহমুদউল্লাহ। মঙ্গলবার আইসিসির সূচি ঘোষণার দিনে বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক জানালেন, প্রতিপক্ষ না দেখে প্রক্রিয়া ঠিক রেখে খেলাটাই তার কাছে গুরুত্বপূর্ণ। গ্রুপ ‘বি’থেকে বাংলাদেশ লড়বে স্কটল্যান্ড, পাপুয়া নিউগিনি ও ওমানের বিপক্ষে। প্রথম রাউন্ডের ‘প্রতিপক্ষ’ নিয়ে মঙ্গলবার মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে মাহমুদউল্লাহ বলেছেন, ‘আমি মনে করি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মতো টুর্নামেন্টে প্রতিটি ম্যাচই সমানভাবে গুরুত্বপূর্ণ। আপনি যেই প্রতিপক্ষের সঙ্গে খেলুন না কেন, প্রতিটি ম্যাচই সমান। আপনাকে শুরুর বল থেকে সেরাটা খেলতে হবে। মানসিক অবস্থা ঠিক রেখে আপনি প্রক্রিয়ায় মনোযোগ রাখলে সব ম্যাচ জিততে পারবেন।’ বিশ্বকাপের আগে ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৫ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি খেলেছে বাংলাদেশ। ১ সেপ্টেম্বর থেকে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আরও ৫টি টি-টোয়েন্টি খেলবে লাল-সবুজ জার্সিধারীরা। বিশ্বকাপের আগে নিজেদের সেরা প্রস্তুতির জন্য এই ম্যাচগুলোকে গুরুত্বপূর্ণ মনে করছেন অভিজ্ঞ এই অলরাউন্ডার, ‘আমি মনে করি, সব দলের জন্য এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ টুর্নামেন্ট। বিশেষ করে আমাদের জন্য তো অবশ্যই। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে আমরা কিছু সিরিজ খেলছি। সামনে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে যদি ভালো করতে পারি এবং আত্মবিশ্বাস অর্জন করতে পারি। সেটা বিশ্বকাপ শুরুর আগে আমাদের দলের জন্য অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করবে।’ প্রসঙ্গত, প্রথম রাউন্ডের গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হতে পারলে সুপার-১২ তে বাংলাদেশ দল সুযোগ পাবে গ্রুপ-২ এ। সেখানে রয়েছে- ভারত, পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও নিউজিল্যান্ড। বাংলাদেশ প্রথম রাউন্ডে গ্রুপ রানার্স-আপ হলে সুপার-১২ এ বদলে যাবে প্রতিপক্ষ। তখন দ্বিতীয় রাউন্ডে লাল-সবুজ জার্সিধারীদের অবস্থান হবে গ্রুপ-১-এ। সুপার-১২ এর এই গ্রুপে রয়েছে ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ।