কোচের সঙ্গে বাগদান সারলেন টেনিস তারকা

7

উইম্বলডনের সবুজ গালিচা যে তার হৃদয়ে বিশেষ জায়গা নিয়ে আছে, তা মোটামুটি সবারই জানা। কেননা দুই বার (২০১১ ও ২০১৪) চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন তিনি। বিশেষ কিছু করতে হলে বিশেষ জায়গাকেই বেছে নিতে হয়। চেক প্রজাতন্ত্রের নারী টেনিস তারকা পেত্রা কেভিতোভা ঠিক সেটাই করলেন। কোচ জিরি ভানেকের সঙ্গে বাগদান সারলেন তিনি। ঘাসের কোর্টে আরো এক আনন্দের স্মৃতি যোগ করলেন এই ৩২ বছর বয়সী। বাগদান সেরে টুইটারে কেভিতোভা লেখেন, ‘আপনাদের সঙ্গে খুশির খবর ভাগাভাগি করে নিতে চাই আমরা। আমার বিশেষ জায়গা আমি হ্যাঁ বলেছি (কোচ ভানেককে)।’ বাগদানের তিন দিন আগেই সিনসিনাটি টুর্নামেন্টে রানার্সআপ হয়েছিলেন কেভিতোভা। সেই হতাশা মন থেকে দ্রুতই মুছে ফেলেন। ২০১৬ সালের নভেম্বরে ভানেককে নিজের কোচ হিসেবে ঘোষণা দিয়েছিলেন দুটো গ্র্যান্ডস্ল্যামের মালিক। ধীরে ধীরে তা পায় প্রেমের পরিণতি। ভানেকের আগে হকি খেলোয়াড় রাডেক মিডলের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন কেভিতোভা। ২০১৫ সালে বাগদানও করেন তারা। কিন্তু এরপর দ্রুতই ছেদ পড়ে সেই সম্পর্কের। কেভিতোভার আঙুলে আংটি পরানোর আগে ডিভোর্সি ছিলেন ভানেক। প্রথম স্ত্রী মার্কেতার ঘরে দুটো সন্তানও আছে তার। টেনিসে সবশেষ মেজর কোনো টুর্নামেন্ট খেলেছিলেন ২০১০ সালে। এরপরই কোচিংয়ে মনোনিবেশ করেন চেক প্রজাতন্ত্রের সাবেক এই খেলোয়াড়। কেভিতোভার কোচ হওয়ার আগে সাবেক ১ নম্বর তারকা কেরোলিনা পিলস্কোভার গুরু ছিলেন তিনি।