কুষ্টিয়ায় স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন

58

gourbangla logoকুষ্টিয়ায় পরকীয়ার জের ধরে স্ত্রীকে কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে হত্যা করার দায়ে প্রকৌশলী স্বামী এরশাদ হোসেন বিপুকে যাবজ্জীবন করাদ-াদেশ দিয়েছেন আদালত। এছাড়া ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছর কারাদ-াদেশ দেওয়া হয়। মঙ্গলবার দুপুরে কুষ্টিয়ার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. বারেকুজ্জামান এ রায় দেন। আদালত সূত্রে জানা যায়, কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা বিদ্যুৎ বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী এরশাদ ২০০৮ সালের ৬ এপ্রিল পরকীয়ার জের ধরে তার স্ত্রী শিখাকে কুষ্টিয়ার শহরের হাউজিংয়ের নিজ বাড়িতে গায়ে কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে হত্যা করে। এ ঘটনায় গৃহবধূ শিখার বাবা মো. সিরাজুল ইসলাম বাদী হয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানায় নিহতের স্বামী এরশাদ, ছোট ভাই ইফতিয়ার হোসেন বিজু ও পরকীয়া প্রেমিকা রাশেদা খাতুনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে আদালত বাকি দু’জন আসামিকে বেকসুর খালাস দিয়ে নিহত গৃহবধূ শিখার স্বামী আসামি এরশাদকে যাবজ্জীবন কারাদ-াদেশ রায় দেন। রায় ঘোষণার সময় দ-াদেশপ্রাপ্ত আসামি এরশাদ আদালতে উপস্থিত ছিলেন। রাষ্ট্রপক্ষের মামলাটি পরিচালনা করেন সরকারি কৌসুলি (পিপি) অ্যাডভোকেট অনুপ কুমার নন্দী এবং আসামিপক্ষের ছিলেন অ্যাডভোকেট অধ্যাপক আমিরুল ইসলাম।