কাজে আসতে বাধ্য করা ঠিক হবে না কর্মীদেরকে: এরিক স্মিড

32

মহামারীর মধ্যে ভয় দেখিয়ে বা জোর করে কর্মীদের আনলে তার মাধ্যমে কর্যকরিতা বাড়বে না বলে সতর্ক করেছেন গুগলের সাবেক প্রধান নির্বাহী এরিক স্মিড। বৃহস্পতিবার মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনবিসি-কে তিনি বলেন, “কাজ হারানোর ভয় দেখিয়ে কর্মীদের কাজে আনা কখনোই ভালো কৌশল নয়। এটি কখনোই সঠিক ফলাফল এনে দেয় না। ” “কর্মীরা যদি সংক্রমণ আর স্বাস্থ্য ঝুঁকির সত্যিকার ভয় পাশ কাটিয়ে কাজে আসতে বাধ্য হয়, তবে এর ফলে কঠিন সময় আসছে সামনে।” যোগ করেন স্মিড। যুক্তরাষ্ট্রের কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে করোনাভাইরাসের কারণে দেওয়া বিধিনিষেধ কিছুটা শিথিল করা হচ্ছে। এই অবস্থায় কর্মীদের কাজে ফেরানোর কথা ভাবছে মালিকপক্ষ। প্রযুক্তি ও আর্থিক সেবাখাতের প্রতিষ্ঠানগুলোর মতো যারা সহজেই বাসা থেকে কাজের ব্যবস্থা করতে পারছে তারা হয়তো বাসা থেকেই কাজের সুযোগ অব্যাহত রাখবে। কিন্তু উৎপাদনের মতো খাতগুলোতে কর্মক্ষেত্রে কর্মীদের ফেরা প্রয়োজন হয়ে দাঁড়িয়েছে। চলতি সপ্তাহে এনবিসি নিউজের এক প্রতিবেদনের বক্তব্য ছিল, ক্যালিফোর্নিয়ায় টেসলা কর্মীরা জানিয়েছেন, তাদের কারখানা আবার চালু হওয়ায় তারা কাজে ফিরতে অনিরাপদ বোধ করছেন। কিন্তু কাজে না এলে এর ফল কী দাঁড়াতে পারে, সেই ভয়ে ভয়ে তারা কাজে আসতে বাধ্য হচ্ছেন। টেসলার নাম উল্লেখ করে কিছু বলেননি স্মিড। তবে, তিনি বলেন, “প্রতিষ্ঠানগুলো শীঘ্রই কর্মীদের তিনটি অবস্থানে দেখতে পাবে- যারা কাজে যেতে পারেন না, যারা যেতে চান না বা বাইরে আসা নিয়ে উদ্বিগ্ন এবং যারা বাড়ি থেকে বের হতে আর অপেক্ষা করতে পারছেন না।” ২০০১ সালের জুলাই থেকে ২০১১ সালের এপ্রিল পর্যন্ত গুগলের প্রধান নির্বাহীর পদে দায়িত্ব পালন করেছেন স্মিড। এরপর ২০১১ সালের এপ্রিল থেকে ২০১৮ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত প্রতিষ্ঠানের নির্বাহী চেয়ারম্যান ছিলেন তিনি।