কসোভোর সাবেক প্রধানমন্ত্রী ফ্রান্সে গ্রেপ্তার

67

02-cosovaকসোভোর সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে গ্রেপ্তার করেছে ফরাসি পুলিশ। যুদ্ধাপরাধের দায়ে সার্বিয়ার জারি করা গ্রেপ্তারি পরোয়ানার ভিত্তিতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।
বিবিসি বলছে, ১৯৯৮-১৯৯৯ সময়পর্বে কসোভোয় সংঘাতের সময় রামোস হ্যারাডিনাজ বিদ্রোহীদের নেতা ছিলেন। এই সংঘাতের ধারাবাহিকতায় পরবর্তী সময়ে কসোভো স্বাধীনতা ঘোষণা করে। জাতিসংঘে তিনি দুইবার যুদ্ধাপরাধের অভিযোগ মোকাবিলা করেন। কিন্তু দুইবারই তাকে দায় থেকে মুক্তি দেওয়া হয়। কসোভোর পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছেন, এই গ্রেপ্তার অগ্রহণযোগ্য। তারা তার মুক্তি নিশ্চিত করার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছেন। রামোস হ্যারাডিনাজ বর্তমানে কসোভোয় একজন বিরোধীদলীয় নেতা হিসেবে দায়িত্বপালন করছেন। তাকে পূর্ব ফ্রান্সের বাসেল মুলহাউজ ফ্রেইবুর্গ বিমানবন্দর থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
কর্তৃপক্ষ বলছে, সার্বিয়ার একটি গ্রেপ্তারি পরোয়ানার ভিত্তিতে গত বুধবার তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ২০১৫ সালে স্লোভেনিয়ার পুলিশও তাকে গ্রেপ্তার করেছিল। কিন্তু দ্রুতই তাকে মুক্তি দেওয়া হয়। ১৯৯০ এর দশকে রামোস হ্যারাডিনাজ কসোভো লিবারেশন আর্মির কমান্ডার ছিলেন। সার্বিয়ার অভিযোগ তিনি আদিবাসী সার্বদের বিরুদ্ধে নির্যাতন ও হত্যার উস্কানি দিয়েছিলেন। তবে এসব অভিযোগ তিনি বরাবরই অস্বীকার করে আসছেন। অভিযোগ মোকাবিলার জন্য প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মাত্র ১০ দিন দায়িত্বপালনের পর তিনি ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়ান। তার বিরুদ্ধে ২০১২ সালে সর্বশেষ বিচারে বলা হয়েছে, অভিযোগের স্বপক্ষে কোনো প্রমাণ নেই। সার্বিয়া থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে ২০০৮ সালে স্বাধীনতা ঘোষণা করে কসোভো। কিন্তু সার্বিয়া এতে স্বীকৃতি দেয়নি।