ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান আওয়ামী লীগ নেতাদের

3

চাঁপাইনবাবগঞ্জে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতীয় শোক দিবস ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদতবার্ষিকী পালন করেছে জেলা আওয়ামী লীগ। গত সোমবার সকাল সাড়ে ৯টায় নবাবগঞ্জ ক্লাব মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় দলীয় নেতৃবৃন্দ বলেছেন, স্বাধীনতার মহান স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মাত্র সাড়ে তিন বছরে যুদ্ধবিধ্বস্ত একটি পোড়া দেশকে যখন সোনার বাংলা হিসেবে গড়ে তুলছিলেন, ঠিক তখনই স্বাধীনতা যুদ্ধে পরাজিত শক্তির ষড়যন্ত্রের শিকার হন তিনি। কতিপয় বিপথগামী সেনা কর্মকর্তাকে দিয়ে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে নৃসংসভাবে হত্যা করা হয়।
সভার প্রথম ভাগেই বক্তব্য দেনÑ জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মু. জিয়াউর রহমান। দলীয় নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেনÑ আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দ্রব্যমূল্য কমে আসবে।
এ পর্যায়ে তিনি সভাপতিত্ব করেন। তিনি ১৫ আগস্টের স্মৃতিচারণ করেন।
বঙ্গবন্ধু না হলে দেশ স্বাধীন হতো না উল্লেখ করে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক এমপি আব্দুল ওদুদ বলেন, সোনার বাংলা গড়ার লক্ষে বঙ্গবন্ধু দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে প্রথমেই পুলিশ বাহিনীকে সুসংগঠিত করেন এবং একটি শক্তিশালী সেনাবাহিনী গড়ে তোলেন। তিনি বলেনÑ সেদিন আওয়ামী লীগের ভেতর থকে এবং দেশী-বিদেশী ষড়যন্ত্রে বঙ্গবন্ধু সপরিবারে নিহত হন। আজও ষড়যন্ত্র হচ্ছে। আমাদের এখানেও হয়েছে। ২০১৮ সালে সারাদেশে একরকম নির্বাচন হয়েছে এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জে অন্যরকম হয়েছে। ষড়যন্ত্র করে আমাকে ফেল করানো হয়েছে। ষড়যন্ত্র এখনো হচ্ছে। কিন্তু কোনো লাভ হবে না। প্রধানমন্ত্রী যাকেই নেতৃত্ব দিবেন তার নেতৃত্বই মেনে নিয়ে কাজ করতে হবে। তাই আসুন, ১৫ আগস্টের শোককে শক্তিতে পরিণত করে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করি।
জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ রুহুল আমিন বলেনÑ আমাদের নিজেদের স্বার্থেই সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। তা না হলে ২০১৩-১৪ সালের মতো জামায়াত শিবির আবার মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে পারে। তবে তারা যদি আবার মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে আমরা তার দাঁতভাঙ্গা জবাব দিব। তিনি বলেনÑ আমরা সদর আসনটি হারিয়ে বুঝতে পারছি, এ আসনে এমপি থাকা কত জরুরি ছিল। কেননা দলীয় এমপি না থাকায় আমরা উন্নয়ন বঞ্চিত হচ্ছি। তিনি ১৫ আগস্টের স্মৃতিচারণ করেন।
সভা সঞ্চালনা করেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শরিফুল আলম। আরো বক্তব্য দেনÑ সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য ফেরদৌসী ইসলাম জেসি, চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মোখলেসুর রহমান, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আজিজুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ আব্দুল জলিল, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আব্দুল আওয়াল গনি জোহা, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ডা. সাইফ জামান আনন্দ।
আলোচনা শেষে দোয়া করা হয়। দোয়া পরিচালনা করেন ছাত্রলীগ নেতা নাহিদ হাসান।
এর আগে সকাল ৮টায় শহীদ মনিমুল হক সড়কে দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা অর্ধনমিত করা হয় এবং সেখান থেকে শোক র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি আব্দুল মান্নান সেন্টু মার্কেটের সামনে শেষ হয়। পরে সেখানে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পাঘ্য অর্পণ করেন দলীয় নেতৃবৃন্দ।
কর্মসূচিতে জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ, সদর উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগ, জেলা ছাত্রলীগ, জেলা যুব মহিলা লীগ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ, জেলা তাঁতী লীগ, যুবলীগ কৃষক লীগ, শ্রমিক লীগের নেতাকর্মীরা অংশ গ্রহণ করেন।
গোমস্তাপুর : চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে দিবসটি উপলক্ষে উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত কর্মসূচিতে অংশ নেন সাবেক সংসদ সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম মোস্তফা বিশ্বাস ও সাধারণ সম্পাদক জামালউদ্দিন, রহনপুর পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুল আজিজ ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী বিশ্বাস, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান খুরশিদ আলম বাচ্চুসহ আওয়ামী লীগের অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা।
নাচোল : সোমবার সকাল ৯টায় নাচোল ১নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে উপজেলা সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদেরের নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এছাড়া আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
অপরদিকে সকাল সাড়ে ৯টায় নাচোল উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগের আয়োজনে নাচোল মধ্যবাজার দলীয় কার্যালয়ে পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুর রশিদ ঝালু খানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আবুল হোসেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেনÑ পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল ইসলামসহ নেতৃবৃন্দ।