এবার দেশের ফুটবল নিয়ে গান গাইবেন আসিফ!

11

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে শুভ কামনা জানিয়ে একটি গান করেছিলেন কণ্ঠশিল্পী আসিফ আকবর। ২০০৪ সালে গাওয়া ‘শাবাশ বাংলাদেশ’ শিরোনামের গানটি সেই সময় সারা দেশে আলোড়ন তুলেছিল। অবশ্য দেশের ফুটবল নিয়ে এখনো কোনো গান করেননি তিনি। হয়তো সেই অপেক্ষার অবসান ঘটতে যাচ্ছে। গত মঙ্গলবার কন্ঠশিল্পী আসিফ আকবরের সঙ্গে দেখা করতে যান বসুন্ধরা কিংসের গোলকিপার আনিসুর রহমান, মিডফিল্ডার আলনগির কবির রানা,উইঙ্গার মোহাম্মদ ইব্রাহিম, ফরোয়ার্ড তৌহিদুল আলন সবুজ ও শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের ডিফেন্ডার ইয়াসিন খান। তাকে জাতীয় দলের একটি জার্সি উপহার দিয়েছেন ফুটবলাররা। সেই সঙ্গে বাংলাদেশের ফুটবলকে উৎসাহ দিতে একটি গান করার অনুরোধ জানিয়েছেন জিকোরা।

বুধবার সকালে আসিফ তার অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে বিষয়টি শেয়ার করে লিখেছেন,’বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের গোলকিপার জিকো। আমার ছোট ছেলে রুদ্র, নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি ফুটবল দলের দশ নম্বর জার্সিধারী প্লেয়ার, ধ্যানে জ্ঞানে মেসি ম্যানিয়াক। জিকো আর রুদ্র সেমসাইড, দুজনেই নর্থ সাউথে খেলে। জিকো আবার বসুন্ধরা কিংসে আছে। কিংসের ক্যাপ্টেন সবুজও এসেছিলো। সঙ্গে এসেছিলো মিডফিল্ডার রানা, আর এখনকার সেনসেশনাল ফুটবলার ইব্রাহীম। ‘এশিয়ান কাপ বাছাইয়ে তুর্কমেনিস্তান ও মালয়েশিয়ার বিপক্ষে দুটি গোল করেছিলেন ইব্রাহিম। তার সেই গোল দুটির প্রশংসা করেছেন আসিফ,’ইয়াসিন ক্ষ্যাপাটে ফুটবলার, তাকে পেয়েছি আরো আগে। ইব্রাহীম শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচে দুটো গোল করেছে, বিশেষ করে তুর্কমেনিস্তানের সাথে তার হেড থেকে পাওয়া গোল প্রশংসা পেয়েছে। এরা তিনজন কক্সবাজারের ছেলে, একজন বরিশাল, একজন সাতক্ষীরার। রুদ্র একজন চশমাওয়ালা ফুটবলার, খুবই বিরল একটা কেইস।

এরা সবাই রুদ্রকে চেনে, ফুটসাল টূর্নামেন্টে তার খেলা দেখে, খুব পছন্দও করে। ‘কন্ঠশিল্পী আসিফ আকবর আরও লিখেছেন,’হঠাৎ এসেই আমাকে বাফুফে’র ন্যাশনাল জার্সিটা গিফট দিয়ে ঝটপট চলে গেলো। যাওয়ার সময় অনুরোধ করে গেল বাংলাদেশের ফুটবলকে উৎসাহ দেয়ার জন্য একটা গান তৈরী করে দিতে। ফুটবল খেলাটা আমার পছন্দ না, চার বছর পরপর বিশ্বকাপ আসলে একটু পাগল হই অবশ্যই, সেটা ব্রাজিলের আদি সমর্থক হিসেবে। ভাল লাগলো নতুন প্রজন্মের ফুটবলাররা আমার গানের ফ্যান, এটাই আমার প্রাপ্তি আর শক্তি। ইব্রাহীমের নাম খুব দ্রুত এদেশের মানুষ জানবে। ছেলেদের পছন্দের গান- এখনো মাঝে মাঝে, মাঝরাতেৃ।

এখন মোটামুটি বেকারই আছি, ফুটবল নিয়ে একটি গান করা যেতেই পারে, ছেলেদের চাহিদা এটাই। যে কোন এঙ্গেলে ভাবনাগুলো একটা জায়গায় এসে থেমে যায়, সেটা হচ্ছে দেশপ্রেম। ‘আসিফ আকবরের সঙ্গে দেখা করার বিষয়ে বসুন্ধরা কিংসের ফরোয়ার্ড তৌহিদুল আলম সবুজ সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন,’মূলত ইব্রাহিম আসিফের ভাইয়ের অনেক বড় ভক্ত। আমরাও তার গান পছন্দ করি। এ ছাড়া জিকো ও আসিফ ভাইয়ের ছেলে এক সঙ্গে পড়াশোনা করে। সেই কারণেই ওঁর সঙ্গে দেখা করতে যাওয়া। ‘