দৈনিক গৌড় বাংলা

শনিবার, ১৮ই মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১০ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

এবার চীন মিশনে যাচ্ছে ‘টুয়েলভথ ফেল’

বিশ্ব চলচ্চিত্রের জন্য বিশাল বাজার চীন। যেমন ভারতের ইতিহাসে সবচেয়ে ব্যবসাসফল ছবি ‘দঙ্গল’র বেশিরভাগ উপার্জন এসেছে চীন থেকে। এরপর বলিউডের আরও একাধিক ছবি দেশটি থেকে বিপুল অর্থ উপার্জন করেছে। এবার চীন মিশনে যাচ্ছে গেলো বছরের বহুল আলোচিত সিনেমা ‘টুয়েলভথ ফেল’। যেটা ভারত ও উপমহাদেশের দর্শকের পাশে অসামান্য জনপ্রিয়তা পেয়েছিল। প্রেক্ষাগৃহের পর ওটিটি প্ল্যাটফর্মেও ছবিটি পেয়েছিল দারুণ সাড়া। এবার ছবির অভিনেতা বিক্রান্ত ম্যাসি জানালেন, এটি মুক্তি পেতে যাচ্ছে চীনে। যদিও দিন-তারিখ এখনই প্রকাশ করেননি। তবে বিক্রান্ত এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ‘যদিও আগেভাগে বলে ফেলছি! তবু, আমি সত্যিই খুব উচ্ছ্বসিত বিষয়টি নিয়ে। দীর্ঘ সময় পর, এমন সামান্য হতে যাচ্ছে।’ বিক্রান্ত জানান, তিনি ও তার সহশিল্পী মেধা শংকর চীনে যাবেন ছবিটির প্রচারের লক্ষ্যে।

এর সামনে ২০১৬ সালে ‘দঙ্গল’ ছবির প্রচারণার জন্য দেশটিতে গিয়েছিলেন আমির খান। সেই ছবি ২ হাজার কোটি রুপির বেশি উপার্জন করে ইতিহাস গড়েছে। অভিনেতা আরও জানালেন, চীনের অন্তত ২০ হাজার প্রেক্ষাগৃহে একযোগে মুক্তি পাবে ‘টুয়েলভথ ফেল’। যা যে কোনো সিনেমার জন্য বিরাট ব্যাপার। বিক্রান্ত বলেন, ‘কয়েক মাস ধরে বিষয়টি নিয়ে পেশা করছিল আমাদের টিম। অবশেষে চূড়ান্ত হলো। এখন কম-বেশি অনেকেই জানেন যে, চীনে ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে। ২০ হাজারের বেশি প্রেক্ষাগৃহে ছবিটি মুক্তি পাবে।’

উল্লেখ্য, ভারতের আইপিএস অফিসার মনোজ অবিবাহিত পুরুষ শর্মার জীবনের ঘটনা প্রবাহ নিয়ে নির্মিত হয়েছে ‘টুয়েলভথ ফেল’। যিনি দারিদ্র্যের চরম সীমা পার করে সরকারের প্রথম সারির কাজের ব্যাপারে প্রধান ব্যক্তি হয়েছেন। সেই সঙ্গে উঠে এসেছে সরকারি চাকরির জন্য তরুণ-তরুণীদের সংগ্রামের গল্প। ছবিতে বিক্রান্ত ম্যাসি ও মেধা শঙ্করের সঙ্গে আরও আছেন অনন্ত ভি জোশি, অংশুমান পুষ্কার ও প্রিয়াংশু চ্যাটার্জি। ছবিটি পরিচালনা ও প্রযোজনা করেছেন বিধু বিনোদ চোপড়া।

About The Author