এনামুলের সেঞ্চুরিতে জয়ের ধারায় গ্রাজী গ্রুপ

110

08-

এনামুল হক বিজয়ের সেঞ্চুরিতে ওয়ালটন ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে (ডিপিএল) জয়ের ধারায় ফিরেছে গ্রাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স। সোমবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত খেলায় তারা ৬ উইকেটে হারিয়েছে ক্রিকেট কোচিং স্কুলকে (সিসিএস)। এদিন সিসিএস আগে ব্যাট করতে নেমে ৪৭ ওভারে ১৭৬ রানে অলআউট হয়। জবাবে ৩৩.৪ ওভারে মাত্র ৪ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে তরী ভেড়ায় অলক কাপালির গ্রাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স।উভয় দলেরই এদিন ছিল লিগের তৃতীয় ম্যাচ। তিন খেলা থেকে ৪ পয়েন্ট পেয়েছে গাজী গ্রুপ। অপরদিকে সমান সংখ্যক খেলা থেকে এখনো পয়েন্ট শূন্য অবস্থায় আছে সিসিএস। এরআগে সোমবার সকালে গাজী গ্রুপের অধিনায়ক অলক কাপালি টস জিতে প্রতিপক্ষকে ব্যাটিংয়ে পাঠান। টস হেরে প্রথমে ব্যাটিং করতে নামে সিসিএস। তবে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই চাপে পড়ে যায় তারা। দলীয় ১৯ রানে দুই উইকেট হারায় সিসিএস।এরপর তৃতীয় উইকেট জুটিতে অমিত মজুমদারের সঙ্গে ৪৪ রানের জুটি গড়ে চাপ সামলে নেন সালমান হোসেন। এরপর আবারো খুব দ্রুত দুই উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে তারা। কিন্তু পঞ্চম উইকেট জুটিতে সালমানের সঙ্গে দলের হাল ধরেন উত্তম সরকার। ৬৯ রানের জুটি গড়ে দলকে বড় সংগ্রহের পথ দেখান এ দুই ব্যাটসম্যান। তবে দলীয় ১৩৪ রানে সালমানের বিদায়ের পর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে সিসিএস।ফলে ৪৭ ওভারে ১৭৬ রান তুলতেই অলআউট হয়ে যায় সিসিএস। গাজী গ্রুপের পক্ষে মোহাম্মদ শরীফ ও মেহেদী হাসান ২টি করে উইকেট পান। এছাড়া একটি করে উইকেট পান সাজিদুল ইসলাম, অলক কাপালি, সাঈদ আনোয়ার জুনিয়র ও মোহাম্মদ ফুরকান।
জবাবে ১৭৭ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের। দলীয় ২৮ রানে দুই উইকেট হারিয়ে চাপে পরে অলক কাপালির দল। এসময় শামসুর রহমান শুভ ৫ রানে ও মেহেদি হাসান ৯ রানে আউট হন। তবে তৃতীয় উইকেট জুটিতে ফরহাদ হোসেনকে সঙ্গে নিয়ে দলের হাল ধরেন এনামুল হক বিজয়।একই সঙ্গে দর্শনীয় ব্যাটিং করে নিজের সপ্তম লিস্ট এ সেঞ্চুরি তুলে নেন তরুণ এই ডানহাতি ওপেনার। মাত্র ৮৩ বলেই সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন এনামুল হক বিজয়। শেষ পর্যন্ত ৮৫ বলে ১০০ রান করে সাইফুদ্দিনের বলে শাওন গাজীর হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন তিনি। এদিন চারের চেয়ে ছক্কা মারার দিকে নজর ছিল তার। ৪টি চারের বিপরীতে ৭টি বিশাল ছক্কা হাঁকান বিজয়।
এদিন এনামুলের সঙ্গে দারুণ ব্যাটিং করেছেন ফরহাদ হোসেনও। এনামুলের সঙ্গে ১৩৯ রানের জুটি গড়ে দলের জয়ে দারুণ অবদান রাখেন। ৭৫ বলে ৪৫ রান করেন ফরহাদ। এরপর সাঈদ আনোয়ার জুনিয়র ও অলক কাপালি জয়ের বাকি কাজটুকু সম্পন্ন করেন। শেষ পর্যন্ত ৩৩.৪ ওভারে ৬ উইকেট হাতে রেখে জয় তুলে নেয় গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স। সিসিএসের পক্ষে সাইফুদ্দিন ২২ রান দিয়ে ৩টি উইকেট পান। এছাড়া সিসিএসের হয়ে বাকী উইকেটটি তুলে নেন দলনায়ক রাজিন সালেহ। ম্যাচসেরা হয়েছেন গ্রাজী গ্রুপের সেঞ্চুরি হাঁকানো ব্যাটসম্যান এনামুল হক বিজয়।