একদিনে তিন ছবির প্রমোশনে রাজ

5

কোরবানির ঈদে পর্দায় এসেছে ‘পরাণ’। এর ২০ দিন পর মুক্তি পায় ‘হাওয়া’ চলচ্চিত্র। দুটি ছবিই বেশ সাড়া ফেলেছে। অক্টোবরে মুক্তি পাচ্ছে আরেক আলোচিত ছবি ‘দামাল’। কাকতালীয়ভাবে তিনটিতেই অভিনয় করেছেন চিত্রনায়ক শরিফুল রাজ। যিনি এরমধ্যে হয়েছেন পুত্রসন্তানের বাবাও। সবমিলিয়ে রাজের বৃহস্পতি এখন তুঙ্গে। স্ত্রী পরীমণি ও পুত্র রাজ্য’র প্রাথমিক টেককেয়ার পর্ব পেরিয়ে এই নায়ক ফের নামছেন সিনেমার প্রচারণায়। সেই ধারাবাহিকতায় মুক্তি পাওয়া সিনেমা দুটির প্রচারণায় সিলেট যাচ্ছেন এই নতুন তারকা। এ শহর ঘিরে আরও একটি পরিচয় আছে তার কাছে। এটি তার নিজের শহর! বেড়ে উঠেছেন এখানকার আলো-বাতাসেই। আর নায়ক হওয়ার পর এভাবেই প্রথম নিজ শহরে ছবির প্রচারণায় তিনি।

একইদিনে অংশ নেন দুটি ছবির প্রদর্শনীতে। শহরের প্রথম মাল্টিপ্লেক্স গ্র্যান্ড সিলেট হোটেল অ্যান্ড রিসোর্ট সিনেপ্লেক্সে গতকাল সোমবার ছবি দুটির প্রদর্শনী হয়। গত ২৯ জুলাই ‘হাওয়া’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে প্রেক্ষাগৃহটির উদ্বোধন হয়েছে। এরপর থেকে তারা ‘পরাণ’ ছবিটিও চালিয়ে আসছে। রাজবলেন, ‘‘একসঙ্গে দুটি ছবি আমার শহরে দেখানো হচ্ছে। আর দুটি ছবির জন্য আজকে আমি এখানে- এটা আমার জন্য বিশেষ। সারাটা দিন এখানেই কাটাতে চাই। দুপুর ৩টায় দর্শকদের সঙ্গে ‘পরাণ’ দেখবো আর সন্ধ্যা ৬টায় ‘হাওয়া’।’’ ধারণা করা হচ্ছে, এই দুটি ছবি তো চলছেই; নিজ শহরে গিয়ে রাজ দর্শকদের আহ্বান জানাবেন ‘দামাল’ ছবিটিও দেখার জন্য। জানা যায়, গতকালের এই শোতে অংশ নেন ‘পরাণ’র পরিচালক রায়হান রাফীও। ছবিটির প্রধান তিন চরিত্রে অভিনয় করেছেন শরিফুর রাজ, বিদ্যা সিনহা মিম ও ইয়াশ রোশান।

এদিকে নিজের শৈশব ও সিলেট নিয়ে এই তারকা বলেন, ‘ছোটবেলায় আমি শুধু দুষ্টু ছিলাম না, বেশ দুষ্টু ছিলাম। আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ লেগেই থাকতো। অভিযোগে বাড়ির সবাই অতিষ্ঠ হয়ে যেতো। এমনও হতো, কোনও দুষ্টুমি হলে প্রথমেই আমাকে সন্দেহ করা হতো। কোনও কিছু না করলেও অভিযোগ আসতো। আমাকে মানুষ করার জন্য আম্মাকে বাড়ি ছেড়ে দিতে হয়েছিল। আমাদের গ্রামের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া ছেড়ে আমরা চলে যাই সিলেট। সেখানে আব্বার চাকরি ছিল। এরপর সেখানের মায়া মেখেই আমার বেড়ে ওঠা।’ অন্যদিকে, ‘হাওয়া’ ছবিটি পরিচালনা করেছেন মেজবাউর রহমান সুমন। এখানে আছেন চঞ্চল চৌধুরী, শরিফুল রাজ, নাজিফা তুষি, নাসির উদ্দিন খান, সোহেল ম-লসহ অনেকে। আর রায়হান রাফীর মুক্তিপ্রতীক্ষিত ‘দামাল’-এ রাজ ছাড়াও আছেন সিয়াম আহমেদ, বিদ্যা সিনহা মিম প্রমুখ।