এইডসের ঝুঁকিতে চাঁপাইনবাবগঞ্জ : সিভিল সার্জন মাহমুদুর রশিদ

26

চাঁপাইনবাবগঞ্জে র‌্যালি ও আলোচনার মধ্য দিয়ে বিশ্ব এইডস দিবস পালিত হয়েছে। শুক্রবার সকালে সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সামনে থেকে র‌্যালিটি বের হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে আলোচনা সভায় মিলিত হয়।
সিভিল সার্জনের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন, সিভিল সার্জন ডা. এস এম মাহমুদুর রশিদ। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন-চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৬জন এইচআইভি/এইডস পজিটিভ আছে। সমকামিতার ফলে তারা আক্রান্ত্র হন। তারা ভালো থাকলেও চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা এইডসের ঝুঁকিতে রয়েছে। এর কারণ হিসেবে বলা যায় সোনামসজিদ স্থলবন্দরে পণ্য নিয়ে ভারতীয় বিভিন্ন প্রদেশের ট্রাক চালক ও তাদের সহকারীরা আসেন। তারা যদি এইচআইভি পজিটিভ হন এবং এখানে যৌনমিলন হয় তাহলে তাদের মাধ্যমেও এইডস ছড়াতে পারে।
এছাড়া যারা ইঞ্জেকশনের মাধ্যমে নেশা করেন কিংবা সেলুনগুলোতে এক ব্লেডে একাধিক লোকের কাজে ব্যবহার করা হয় তাহলেও এইডস ছড়াতে পারে। এছাড়া যারা বিদেশে দীর্ঘদিন থেকে দেশে ফেরেন তাদের মধ্যে কেউ যদি এইচআইভি পজিটিভ হন তাহেলও ছড়াতে পারে। কাজেই সচেতনতার বিকল্প নেই। তাই এইডস থেকে বাঁচতে এবং যুব সমাজকে বাঁচাতে কমিউনিটি পর্যায়ে এইচআইভি/এইডস সম্পর্কে ব্যাপক প্রচারণার মাধ্যমে সচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে। একাজে যুবরাই অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে পারেন বলে উল্লেখ করেন সিভিল সার্জন ডা. এস এম মাহমুদুর রশিদ।
সভায় সম্মানীত অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন, পুলিশ সুপার পদে সদ্য পদোন্নতি পাওয়া চাঁপাইনবাবগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) আবুল কালাম সাহিদ, জেলা প্রশাসকের প্রতিনিধি সহকারী কমিশনার আমিনুল ইসলাম, প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটির কর্মসূচি ব্যবস্থাপক ফারুক আহমেদ, আহছানীয় মিশনের প্রতিনিধি সালাহ উদ্দিন জুয়েল, আশার আলোর ফাতেমাতুজ্জহরা, জেলা স্বাস্থ্য যুব ফোরমের সমন্বয়কারী রাফিউল ইসলাম রাফিসহ অন্যরা।
মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপন করেন জেলা সার্ভিলেন্স মেডিকেল অফিসার ডা. আশহাব শারিয়ার টমাস।
স্বাগত বক্তব্য দেন সিভিল সার্জন কার্যালয়ের জুনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষা অফিসার শামসুন নাহার ডলি। সিনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষা কর্মকর্তা চৌধুরী আব্দুল্লাহ আস সামস তিলোকসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।
কর্মসূচিতে ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেলা হাসপাতাল, সিভিল সার্জন অফিস, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা স্বাস্থ্য অধিকার যুব ফোরাম, প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটি, আপোশ, আহছানীয় মিশন অংশ্রগহণ করে।
ঢাকা আহছানীয় মিশন, ব্র্যাক, প্রয়াস মানিবক উন্নয়ন সোসাইটি ও আপোশের সহযোগিতায় সিভিল সার্জন অফিস এই কর্মসূচির আয়োজন করে। এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় নির্ধারণ করা হয়েছে কমিউনিটির আমন্ত্রণ-এইড হবে নিয়ন্ত্রণ।