উৎসবের মৌসুমে উড়ছে বুবলী

1

ঈদ মৌসুমে মৃতপ্রায় বহু সিনেমা হল প্রাণ পেয়েছে। দুই শতাধিক প্রেক্ষাগৃহে উঠেছে নতুন আটটি সিনেমা। এর মধ্যে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে ১০০ হল দখলে নিয়েছে শাকিব খান ও বুবলী অভিনীত ‘লিডার: আমিই বাংলাদেশ’। এক ডজন হল পেয়েছে ‘লোকাল’; যেখানে জুটি বেঁধেছেন আদর আজাদ ও বুবলী।নায়িকা হিসেবে এবারের ঈদের রানি বুবলী। এ নিয়ে দ্বিধা নেই কারোর। হলের সংখ্যার বিচারে হোক কিংবা দর্শক সাড়া, সবেতেই তিনি এগিয়ে। তাই বলা চলে, উৎসবের মৌসুমে উড়ছেন তিনি।না, সাফল্যের হাওয়া ঘরে বসে কিংবা অবকাশ যাপনে গিয়ে খাচ্ছেন না বুবলী। বরং ছবিকে আরও বেশি দর্শকের কাছে পৌঁছে দিতে ঘর ছেড়ে ছুটে বেড়াচ্ছেন বিভিন্ন অঞ্চলে। গত শুক্রবার মানিকগঞ্জ ও কুষ্টিয়া ভ্রমণ করেছেন এ নায়িকা। সঙ্গে ছিল ‘লিডার’ টিম। তবে হ্যাঁ, বরাবরের মতো এসব প্রচারণায় অধরা শাকিব।মানিকগঞ্জের নবীন সিনেমা হল ও কুষ্টিয়ার নতুন চালু হওয়া স্বপ্নীল সিনেপ্লেক্সে দর্শকের প্রতিক্রিয়া জানতে হাজির হয়েছিলেন বুবলী।

তাদের সঙ্গে কথা বলেছেন, তুলেছেন ছবিও। লালনের দেশ কুষ্টিয়ায় গিয়ে বুবলী নিজের অনুভূতি প্রকাশ করেছেন এভাবে, ‘আমরা বলে থাকি, বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক একটি জেলা কুষ্টিয়া। এখানকার যে সংস্কৃতি, কৃষ্টি-কালচার, সবকিছু মিলিয়ে খুব ভালোবাসার একটি জেলা। যতদূর জানি, এখানে অনেকগুলো সিনেমা হল ছিল। কিন্তু অনেক বছর ধরে সেগুলো বন্ধ আছে। এখন এই যে নতুন একটি সিনেমা হল চালু হলো, এবং আমরা এখানে আসতে পেরেছি, এজন্য ভালো লাগছে।’বুবলীর মতে, ‘লিডার’ ছবিটি দেশজুড়ে আলোড়ন তৈরি করেছে। তার ভাষ্য, “লিডার’ ইতোমধ্যে দেশব্যাপী যে উন্মাদনা সৃষ্টি করেছে, যে ভালোবাসা আমরা পাচ্ছি, সেই ভালোবাসা ভাগাভাগি করতে এসেছি কুষ্টিয়ায়। এ অঞ্চলের মানুষ সিনেমাকে এত ভালোবাসে, সেটা আজ বোঝা গেলো।”এক দিকে শাকিব খানের সিনেমা, সেই সঙ্গে হলের সংখ্যা বেশি, স্বাভাবিকভাবেই ঈদের বাজারে এগিয়ে ‘লিডার’। এ ছাড়া এই ঈদে মুক্তি পাওয়া ‘জ¦ীন’, ‘কিল হিম’, ‘লোকাল’ ছবিগুলোও সাড়া পাচ্ছে বেশ।উল্লেখ্য, তপু খান নির্মিত প্রথম সিনেমা ‘লিডার: আমিই বাংলাদেশ’। এতে শাকিব-বুবলীর সঙ্গে আরও আছেন মিশা সওদাগর, শহীদুজ্জামান সেলিম, সুব্রত প্রমুখ। প্রযোজনায় বেঙ্গল মাল্টিমিডিয়া।