উত্তর কোরিয়ার হাইড্রোজেন বোমা পরীক্ষা

71

1

উত্তর কোরিয়া জানিয়েছে তারা সফলভাবে প্রথমবারের মতো হাইড্রোজেন বোমার পরীক্ষা সম্পন্ন করেছে। দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন জানিয়েছে, বুধবার সকালে হাইড্রোজেন পরমাণু ডিভাইসের (হাইড্রোজেন বোমা) এই সফল পরীক্ষাটি চালানো হয়। এর আগে দেশটির প্রধান পারমাণবিক কেন্দ্রের কাছাকাছি কৃত্রিম ভূমিকম্প সৃষ্টি হয়েছিল বলে জানিয়ে ছিল দক্ষিণ কোরিয়া। বিবিসি বলছে, ২০০৬ সাল থেকে উত্তর কোরিয়া ভূগর্ভে তিন দফা পরমাণু অস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে বলে বিশ্বাস করা হয়। এসব পরীক্ষার সবগুলোই পুংগাই-রি নামের একটি স্থাপনায় চালানো হয়। ভূকম্পন শনাক্ত হওয়ার পর দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম অল্প সময়ের মধ্যেই ‘বিশেষ, তাৎপর্যপূর্ণ’ ঘোষণা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছিল। যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা (ইউএসজিএস) জানিয়েছে, পুংগাই-রি থেকে প্রায় ৫০ কিলোমিটার দূরে নতুন ভূমিকম্পন শনাক্ত হয়। এটির উৎপত্তিস্থল ছিল মাটির ১০ কিলোমিটার গভীরে। ভূমিকম্পটি ৫ দশমিক ১ মাত্রার ছিল বলে জানিয়েছে ইউএসজিএস, অপরদিকে দক্ষিণ কোরিয়ার আবহাওয়া সংস্থা ভূমিকম্পটি ৪ দশমিক ২ মাত্রার ছিল বলে জানিয়েছে।
উত্তর কোরিয়ার প্রতিবেশী দেশ চীন, জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়াও ভূকম্পন শনাক্তের কথা জানিয়ে এটি মানব-সৃষ্ট, এমন ইঙ্গিত পাওয়া কথা জানিয়েছিল। এতে উত্তর কোরিয়া নতুন একটি পরমাণু অস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছিল। হাইড্রোজেন বোমা সাধারণ পারমাণবিক বোমা থেকে অনেক শক্তিশালী ও ধ্বংসাত্মক। উত্তর কোরিয়া অনেক দিন ধরেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে হামলা হানতে সম্ভব এমন মিসাইল বানানোর চেষ্টা করছে। ধারণা করা হয়, উত্তর কোরিয়ার কাছে প্রাথমিক পর্যায়ের কিছু পারমাণবিক বোমা রয়েছে। তারা এখনো পারমাণবিক শক্তিধর হয়ে উঠতে পারেনি বলেই ধারণা করা হতো।