উত্তর কোরিয়ার সেই ‘অজ্ঞাত ক্ষেপণাস্ত্রটি’ ছিল হাইপারসনিক

3

উত্তর কোরিয়া একটি হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা চালানোর দাবি করেছে। বৃহস্পতিবার দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম বলেছে, এটি চলতি বছরের সবচেয়ে বড় অস্ত্র পরীক্ষা। গত বুধবার এই ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালানো হয়। কোরিয়ান সেন্ট্রাল নিউজ অ্যাজেন্সি (কেসিএনএ) বলেছে, ক্ষেপণাস্ত্রটি ৭০০ কিলোমিটার (৪৩৪ মাইল) দূরে ঠিক করা লক্ষ্যবস্তুতে ‘সুনির্দিষ্টভাবে আঘাত’ আনতে সক্ষম হয়েছে। খবর বিবিসি অনলাইনের। এর আগে গত বুধবার আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক সূত্র ও জাপান কোস্ট গার্ডের বরাতে বলা হয়েছিল, উত্তর কোরিয়া সমুদ্রে একটি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে।

তবে তা কোন ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র তা বলতে পারেনি। এদিকে হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের এটি দ্বিতীয় পরীক্ষা এবং এটি ব্যালেস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের চেয়ে দূরের নজরদারি এড়াতে পারে। পিয়ংইয়ং প্রতিরক্ষা সক্ষমতা বৃদ্ধি করবে, দেশটির শীর্ষ নেতা কিম জং উনের এমন মন্তব্যের পরই ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার এই ঘটনা ঘটল। নতুন বছর উপলক্ষে দেওয়া বক্তব্যে কিম জং বলেছিলেন, কোরিয়ান উপদ্বীপে ক্রমবর্ধমান সামরিক পরিবেশের কারণে পিয়ংইয়ং তাদের প্রতিরক্ষা সক্ষমতা বৃদ্ধির ধারাবাহিকতা ধরে রাখবে। যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে আলোচনায় স্থবিরতা আসলে গত বছর বিভিন্ন ধরনের ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালায় উত্তর কোরিয়া।