ইয়াবা নিয়ে উদ্বেগ সেতুমন্ত্রীর

43

2015-05-23_bss-50_209928আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বাংলাদেশের গ্রামে গ্রামে ইয়াবা পৌঁছে গেছে। এসব সেবনে আমাদের পরবর্তী প্রজন্ম ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। শুক্রবার সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হল অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন ওবায়দুল কাদের। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি মিলনায়তনে আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে সেতুমন্ত্রী বলেন, অচিরেই যদি ইয়াবা রোধ করা না যায়, তবে একটা প্রজন্ম গ্যাপ তৈরি হবে। রাজনীতিকদের উদ্দেশ করে কাদের বলেন, আপনারা শুধু রাজনীতিক বক্তৃতা দেবেন না। মাদকের বিরুদ্ধে ক্যাম্পেইন গড়ে তুলবেন। নিজ নিজ এলাকা মাদকমুক্ত করে তুলবেন। মনে রাখবেন, তথাকথিত রাজনীতিকরা সময়-পরবর্তী নির্বাচনের কথা ভাবে। আর আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পরবর্তী প্রজন্মের কথা ভাবেন। কাদের বলেন, আমাদের কমন (সাধারণ) ডেঞ্জার (বিপদ) হলো সাম্প্রদায়িকতা। আর কমন এনিমি (শত্রু) হলো দারিদ্র্য। এটা প্রতিহত করতে না পারলে আমাদের আমাদের অবিনাশী চেতনা ব্যাহত হবে। বিভেদের দেয়াল নয়, সম্পর্কের সেতু তৈরি করতে হবেÑসবার প্রতি এমন নির্দেশনা দিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, প্রেসক্লাব, চিকিৎসক, আইনজীবী থেকে শুরু করে সর্বত্র সংশয়, অবিশ্বাস ও বিভাজনের দেয়াল উঠে গেছে। এর পরিণতি ভালো নয়। এই বিভেদ দূর করতে হবে। মনে রাখতে হবে, অন্ধকার দিয়ে অন্ধকার প্রতিহত করা যায় না; অন্ধকার দূর করতে চাই আলো। শান্তি না হোক, মনের মাঝে অন্তত স্বস্তি ফিরে আসুক। সংখ্যালঘু সম্প্রদায় সম্পর্কে কাদের বলেন, আপনারা কেউ নিজেদের মাইনরিটি (সংখ্যালঘু) ভাববেন না। সংবিধান ও সরকার আপনাদের পাশে আছে। তাই কোনো আঘাত এলে পাল্টা আঘাত দেওয়ার মানসিকতা রাখবেন। এর আগে সকালে দিনব্যাপী আয়োজনের উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগ নেতা সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত। উদ্বোধনী আয়োজনের সভাপতিত্ব করেন অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি পান্না লাল দত্ত। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (ভিসি) ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বীরেন শিকদার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি এ কে আজাদ প্রমুখ।