ইরান থেকে ৩২ টন ভারি পানি কিনছে যুক্তরাষ্ট্র

130

04-Nuclear-ed

ইরানের পরমাণু কর্মসূচি প্রকল্প থেকে ৩২ মেট্রিক টন ভারি পানি কিনছে যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা গত শুক্রবার জানিয়েছেন, এই পানি আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই সরবরাহ করা হবে বলে তারা আশা করছেন।
বার্তা সংস্থা রয়টার্স, বিবিসি ও রেডিও তেহরানের বরাতে এই খবর জানা গেছে। যুক্তরাষ্ট্রের জ¦ালানি দপ্তর (ডিওই) ৮৬ লাখ ডলারে এই পানি আমদানি করছে বলে জানিয়েছেন দপ্তরটির মুখপাত্র। দেশটির বাণিজ্যিক এবং গবেষণা সংস্থাগুলোসহ একটি জাতীয় গবেষণাগারের কাছে এই পানি বিক্রির পরিকল্পনা করেছে দপ্তরটি। পরমাণু অস্ত্র ও পরমাণু শক্তি উৎপাদনে ভারি পানি কাজে লাগে। তবে পানির এ রূপটি তেজস্ক্রিয় নয়। এসব ভারি পানি ইরানের কয়েকটি পরমাণু চুল্লিতে ব্যবহৃত হয়েছে বলে জানা গেছে। গেল বছর যুক্তরাষ্ট্র ও অপর পাঁচটি বিশ্বশক্তির সঙ্গে ইরানের ঐতিহাসিক পরমাণু চুক্তি সই হয়। ওই চুক্তি অনুযায়ী ইরানকে তার ভারি পানির মজুদ হ্রাস করতে হবে।
চুক্তির শর্তানুযায়ী, চলতি সময়ে ইরান ১৩০ মেট্রিক টন পর্যন্ত ভারি পানির মজুদ রাখতে পারবে আর অতিরিক্ত পানি বিক্রি করতে, নষ্ট করতে বা সাধারণ পানির সঙ্গে মিশিয়ে ফেলতে পারবে। ইরানের আইন এবং আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্বাস আরাকচি গত শুক্রবার ভিয়েনায় মার্কিন কর্মকর্তাদের সঙ্গে এই রপ্তানির বিষয়ে কথাবার্তা চূড়ান্ত করেন।
তিনি বলেন, ইরানের আণবিক শক্তি সংস্থা এবং মার্কিন একটি কোম্পানি ভারি পানি বিক্রি সংক্রান্ত চুক্তি করেছে। তিনমাস আলোচনার ভিত্তিতে এই চুক্তি সই হয়েছে বলেও জানান তিনি। ইরানের কাছে অতিরিক্ত আরো ৭০ মেট্রিক টন ভারি পানি আছে বলে জানিয়েছেন আরাকচি। ওই পানিও অন্যান্য কোম্পানির কাছে বিক্রির জন্য আলোচনা চলছে। তবে সেগুলো মার্কিন কোম্পানি নয় বলে নিশ্চিত করেছেন তিনি। সরকারের এ ক্রয় সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছে যুক্তরাষ্ট্রের বিরোধীদল রিপাবলিকান পার্টি।